বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অন্তর্দ্বন্দ্ব নাকি রাজনৈতিক হিংসা?‌ তোরণে ছেঁড়া শুভেন্দুর ছবি নিয়ে জলঘোলা
একদিন পরে তোরণে থাকা শুভেন্দু অধিকারীর একাধিক ছবি ছেঁড়া হয়েছে।
একদিন পরে তোরণে থাকা শুভেন্দু অধিকারীর একাধিক ছবি ছেঁড়া হয়েছে।

অন্তর্দ্বন্দ্ব নাকি রাজনৈতিক হিংসা?‌ তোরণে ছেঁড়া শুভেন্দুর ছবি নিয়ে জলঘোলা

  • দেবী বোধনের পরের দিনই দেখা গেল তোরণের বাকি সব কিছু ঠিকঠাক থাকলেও তৃণমূল সাংসদ শুভেন্দু অধিকারীর একাধিক ছবি ছেঁড়া অবস্থায় রয়েছে।

সংসদীয় এলাকায় শারদ শুভেচ্ছা জানাতে একাধিক তোরণ বানিয়েছিল নারায়ণগড় ব্লক তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। কিন্তু দেবী বোধনের পরের দিনই দেখা গেল তোরণের বাকি সব কিছু ঠিকঠাক থাকলেও তৃণমূল সাংসদ শুভেন্দু অধিকারীর একাধিক ছবি ছেঁড়া অবস্থায় রয়েছে। ষষ্ঠীর দিন তৈরি হয়েছিল তোরণ। একদিন পর দেখা গেল, তোরণের মধ্যে শুধু ছেঁড়া শুভেন্দুর একাধিক ছবি।

ব্লক টিএমসিপি’‌র পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় এসব কাজ বিরোধী দলেরই। যদিও ঘাসফুল শিবিরের বক্তব্য অস্বীকার করে বিরোধী রাজনৈতিক দলের দাবি এই ঘটনা নাকি তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্বের ফল। সম্প্রতি তৃণমূলের নতুন রাজ্য কমিটিতে এককভাবে কোনও দায়িত্ব দেওয়া হয়নি শুভেন্দু অধিকারীকে। যা নিয়ে মমতা শিবিরে তৈরি হয়েছে ফাটল। এই ঘটনার প্রতিবাদে মৌন মিছিলের আয়োজন করেছে ব্লক টিএমসিপি বলে খবর।

আগামী বৃহস্পতিবার বেলদাতে মিছিল করে ঘটনার প্রতিবাদ জানাবে তারা। সঙ্গে সারা বেলদা শহর মুড়ে দেওয়া হবে শুভেন্দুর ছবিতে। গত ৮ অক্টোবর কৃষি আইনের সমর্থনে বিজেপি বেলদাতে মিছিল করে। নারায়ণগড় এলাকার বিভিন্ন দাবিকে সামনে রেখে বিডিওকে স্মারকলিপি দেয়। ব্লক তৃণমূল গত ১২ অক্টোবর কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে বেলদাতে বহু মানুষের মিছিল ও সভা করেছিল।

এবার শারদ শুভেচ্ছা–সহ ‘জঙ্গলমহলের মুক্তিসূর্য জননেতা’ এই ফ্লেক্সে ভরিয়ে দেওয়া হল ঝাড়গ্রাম শহরের বিভিন্ন এলাকা। তৃণমূল সাংসদ হিসেবে নয় বরং এলাকার দাদা হয়ে গত কয়েক মাস ধরেই চলছে জনসংযোগ বাড়ানোর কাজ। ব্যক্তিগত উদ্যোগে গৃহহীনদের বাড়ির চাবি, দুঃস্থ মহিলাদের সেলাই মেশিন দিয়ে গিয়েছেন শুভেন্দু। পুজোর মধ্যে শুভেন্দুহীন ফ্লেক্সের ঘটনার পর মমতাহীন শুভেন্দুর ফ্লেক্স নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে বঙ্গ রাজনীতিতে।

নারায়ণগড় মধ্য মণ্ডল বিজেপি’‌র সভাপতি শুভাশিস মহাপাত্র বলেন, ‘‌নিজেদের দোষ ঢাকতে চাইছে তৃণমূল। আর তা বিজেপি’‌র ওপর চাপাতে চাইছে। দলেই দুই নেতৃত্বকে নিয়ে দ্বন্দ্ব সবারই জানা। আমাদের কেউ এই কাজ করেনি।’‌ 

ফ্লেক্সে করজোড়ে শুভেন্দু ছবির সঙ্গে লেখা— শারদীয়া, লক্ষ্মীপুজো, দীপাবলি এবং ছটপুজো উপলক্ষ্যে জানাই শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন। জঙ্গলমহলের মুক্তিসুর্য জননেতা শুভেন্দু অধিকারী।

বন্ধ করুন