বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুরুলিয়ার রঘুনাথপুরে ট্যারেন্টুলা, আতঙ্কে গ্রামবাসীরা
ট্যারেন্টুলা, প্রতীকী ছবি

পুরুলিয়ার রঘুনাথপুরে ট্যারেন্টুলা, আতঙ্কে গ্রামবাসীরা

  • পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া-সহ রাজ্যের জঙ্গলমহল এলাকায় লোমশ এই ধরনের মাকড়সা আগেও দেখা গিয়েছিল। পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতন, কেশিয়ারির মতো এলাকায় ট্যারেন্টুলা মাকড়সার কামড়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। মাকড়সার কামড় এতটাই যন্ত্রণাদায়ক ছিল যে সহ্য করা মুশকিল হয়ে যায়।

‌পুরুলিয়ার রঘুনাথপুরে বড়সড় মাকড়সাকে কেন্দ্র করে আতঙ্ক ছড়াল। মাকড়সাটিকে দেখে গ্রামবাসীরা বন দফতরে খবর দেয়। বন দফতরের কর্মীরা এসে মাকড়সাটিকে নিয়ে যায়। বন দফতরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এটি একটি ট্যারেন্টুলা মাকড়সা। আতঙ্কের কোনও কারণ নেই।

জানা গিয়েছে, পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর ব্লকের জিয়ারা গ্রামে বেশ কয়েকদিন ধরেই একটি বিশেষ প্রজাতির মাকড়সা চোখে পড়েছিল গ্রামবাসীদের। মাকড়সাটি বড় আকৃতির। গায়ে লোম আছে। মাকড়সাটিকে দেখে গ্রামবাসীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গ্রামবাসীরা রঘুনাথপুরের বন দফতরের অফিসে খবর দেয়। এরপর গ্রামবাসীরা মাকড়সাটিকে ধরে বন দফতরের হাতে তুলে দেয়। রঘুনাথপুর রেঞ্জের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, এটি ট্যারেন্টুলা প্রজাতির মাকড়সা। এতে ভয়ের কোনও কারণ নেই।

পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া-সহ রাজ্যের জঙ্গলমহল এলাকায় লোমশ এই ধরনের মাকড়সা আগেও দেখা গিয়েছিল। পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতন, কেশিয়ারির মতো এলাকায় ট্যারেন্টুলা মাকড়সার কামড়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। মাকড়সার কামড় এতটাই যন্ত্রণাদায়ক ছিল যে সহ্য করা মুশকিল হয়ে যায়। গ্রামবাসীদের মধ্যে রীতিমতো আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়। শুধু পশ্চিম মেদিনীপুর নয়, হাওড়া, হুগলি, বর্ধমান, বীরভূম, পূর্ব মেদিনীপুরেও এই বিশেষ প্রজাতির মাকড়সার অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে।

বন্ধ করুন