বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Anubrata Mondal: সুকন্যা কি সত্যিই স্কুলে যেতেন না! মুখ খুলতে চাইছেন না স্কুলের শিক্ষকরা
সুকন্যা মণ্ডল এই স্কুলেরই শিক্ষিকা। নিজস্ব ছবি

Anubrata Mondal: সুকন্যা কি সত্যিই স্কুলে যেতেন না! মুখ খুলতে চাইছেন না স্কুলের শিক্ষকরা

  • সুকন্যা মণ্ডল যেই স্কুলে চাকরি করেন সেই স্কুলের নাম কালিকাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়। বীরভূমের বোলপুরের নিচুপট্টি এলাকায় অনুব্রতর বাড়ি থেকে ঢিল ছোরা দূরত্বে অবস্থিত এই স্কুলটি। যদিও সুকন্যা স্কুলে আসতেন কি আসতেন না তা নিয়ে মুখ খুলতে চাইনি স্কুল কর্তৃপক্ষ।

বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল গরু পাচার কাণ্ডে গ্রেফতার হওয়ার পরেই তার মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলকে নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে টেট পাস না করেই তিনি স্কুলের চাকরি করছেন। এমনকি স্কুলে না গিয়ে বাড়িতে বসেই তিনি বেতন পাচ্ছেন বলে অভিযোগ। এ নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।

সুকন্যা মণ্ডল যেই স্কুলে চাকরি করেন সেই স্কুলের নাম কালিকাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়। বীরভূমের বোলপুরের নিচুপট্টি এলাকায় অনুব্রতর বাড়ি থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে অবস্থিত এই স্কুলটি। যদিও সুকন্যা স্কুলে আসতেন কি আসতেন না তা নিয়ে মুখ খুলতে চাইনি স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে অভিযোগ উঠেছে স্কুলে না গিয়ে বাড়িতে বসেই বেতন পেতেন সুকন্যা। সই করার জন্য তার বাড়িতেই নাকি স্কুলের রেজিস্টারের খাতা পৌঁছে যেত। ফলে সে ক্ষেত্রে বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষের জানা রয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। যদিও স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা তনুশ্রী মণ্ডল এ বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি। তিনি বলেন, ‘আমি কোনও দোষ করিনি। বিষয়টি হাইকোর্টের বিচারাধীন। তাই আমি এ নিয়ে মন্তব্য করতে চাই না।’ স্কুলের পড়ুয়ারা অবশ্য বলছে যে তারা কোনওদিনই সুকন্যা নামের কোনও শিক্ষিকার নাম শোনেনি বা তাকে দেখেনি। ওই স্কুলে বর্তমানে একজন শিক্ষক এবং তিনজন শিক্ষিকা রয়েছে সেটাই তারা জানে। এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারাও কোনওদিন তাকে স্কুলে যেতে দেখেননি বলে দাবি করেছেন। এক টোটো চালক জানিয়েছেন, ‘আমি কোনদিন ওনাকে স্কুলে আসতে দেখিনি।'

উল্লেখ্য, টেট না দিয়ে চাকরি পাওয়ার অভিযোগ উঠতেই আজ সুকন্যাকে কলকাতা হাইকোর্টে তলব করা হয়েছিল। সেই মতোই তিনি আজ কলকাতা হাইকোর্টে হাজিরা দিয়েছেন। এ বিষয়ে কলকাতা হাই কোর্টের আইনজীবী ফিরদৌস সামিমের দাবি, টেট না দিয়ে প্রাথমিকে চাকরি পেয়েছেন সুকন্যা। তাকে বোলপুর ওয়েস্ট সার্কেলের কালিকাপুর প্রাইমারি স্কুলে চাকরি দেওয়া হয়েছে। তাঁর আরও অভিযোগ, শুধুমাত্র সুকন্যাই নন অনুব্রত ঘনিষ্ঠ অনেকেই অনৈতিকভাবে চাকরি পেয়েছেন।

বন্ধ করুন