বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Son chained: ভূতে ধরেছে! সন্দেহে ছেলেকে ৮ দিন ধরে শিকলে বেঁধে রাখলেন বাবা মা, আলোড়ন হুগলিতে

Son chained: ভূতে ধরেছে! সন্দেহে ছেলেকে ৮ দিন ধরে শিকলে বেঁধে রাখলেন বাবা মা, আলোড়ন হুগলিতে

ভূতে ধরেছে! সন্দেহে ছেলেকে ৮ দিন ধরে শিকলে বেঁধে রাখলেন বাবা মা, আলোড়ন হুগলিতে

গত ৮ দিন ধরে এভাবেই বাড়িতে শিকল বন্দি অবস্থায় রয়েছে দশম শ্রেণির ওই পড়ুয়া। এক সপ্তাহ আগে টিউশন থেকে বাড়ি ফিরে হঠাৎই অদ্ভুত আচরণ করতে থাকে বছর ১৬- এর ওই কিশোর। পরিবারের সদস্যরা তো বটেই গ্রামের জনাদশেক লোকজন মিলেও তাকে আটকাতে পারছিলেন না। শেষ পর্যন্ত তাকে শিকলে তালা বেঁধে রেখে দেন তার বাবা-মা।

একবিংশ শতকেও কুসংস্কারের ছায়া। ছেলেকে ভূতে ধরেছে! এমনই সন্দেহের বশে ৮ দিন ধরে শিকলে তালা দিয়ে বেঁধে রাখলেন বাবা-মা। ছেলেকে শুধু শিকলবন্দিই নয় কয়েক হাজার টাকা খরচ করে বেশ কয়েকজন ওঝার কাছেও নিয়ে গেলেন। এমনই ঘটনার সাক্ষী থাকল হুগলির চুঁচুড়ার কেওটার হেমন্ত বসু কলোনী। ঘটনায় তীব্র আলোড়ন পড়ে যায় এলাকায়। শেষ পর্যন্ত ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছয় পুলিশ এবং বিজ্ঞান মঞ্চের সদস্যরা।

আরও পড়ুন: কয়েক দশক পরেই এই সব শহরে ঘুরে বেড়াবে ‘ভূত’! এখন থেকেই জানিয়ে দিলেন বিশেষজ্ঞরা

কী ঘটনা?

স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, গত ৮ দিন ধরে এভাবেই বাড়িতে শিকল বন্দি অবস্থায় রয়েছে দশম শ্রেণির ওই পড়ুয়া। এক সপ্তাহ আগে টিউশন থেকে বাড়ি ফিরে হঠাৎই অদ্ভুত আচরণ করতে থাকে বছর ১৬- এর ওই কিশোর। পরিবারের সদস্যরা তো বটেই গ্রামের জনাদশেক লোকজন মিলেও তাকে আটকাতে পারছিলেন না। শেষ পর্যন্ত তাকে শিকলে তালা বেঁধে রেখে দেন তার বাবা-মা। তখন গ্রামবাসীদের অনেকেই সন্দেহ করেন কিশোরকে ভূতে ধরেছে। কিশোরের বাবা-মাও সেই কথা  বিশ্বাস করে নেন। তখন স্থানীয়দের পরামর্শে তারা কিশোরকে বেশ কয়েকটি ওঝার কাছে নিয়ে যান। তাতে ওঝারা বেশ কয়েক হাজার টাকা নিয়ে মাদুলি দিয়েছিলেন। কিন্তু, শেষে বাড়ি ফেরে কিশোর মাদুলি ছিঁড়ে চিবিয়ে খেয়ে নেয়। পরে আরও দুই ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। তারাও কয়েক হাজার টাকা নিয়ে নেন, জল পড়াও দেন। কিন্তু, কাজ না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে সন্তানকে শিকলে বেঁধে রাখেন বাবা মা। 

কেন বেঁধে রাখা হল? এই বিষয়ে কিশোরের বাবা কার্তিক মালাকারকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘ছেলে গত সপ্তাহে টিউশন পড়ে বাড়ি ফিরছিল। সেই পথে আমার সঙ্গে ছেলের দেখা হয়েছিল। ছেলে একটি জায়গায় চুপচাপ দাঁড়িয়ে ছিল। পরে আমি ছেলেকে জিজ্ঞেস করতেই সে বাড়ি যাওয়ার কথা জানাই। এরপর বাড়ি ফিরতেই চিৎকার চেঁচামেচি, ভাঙচুর করতে করে শুরু করে ছেলে।’ 

কার্তিকের কথায়, ‘বাড়ি ফিরে আমরা ছেলেকে আটকানোর চেষ্টা করি। কোনওভাবে তাকে ধরে রাখতে পারছিলাম না। ১০-১২ মিলেও চেষ্টা করেও তাকে আটকাতে পারিনি। তাই তাকে বেঁধে রাখা ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না। অনেকে বলে ভূতে ধরেছে। ওঝা বদ্যি করতে।’ এরপর তিনি পূর্ব বর্ধমানের বড়শূলে ওঝার বাড়িতে যান। তাতে কাজ হয়নি। এরপরে আরও বেশ কয়েকজনকে দেখালেও কাজ হয়নি। কেন তিনি চিকিৎসকের কাছে গেলেন না? সে বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সেই সময় মাথায় ঠিক ছিল না। গ্রামের লোকের পরামর্শ মেনে নিয়ে আমার ওঝার কাছে গিয়েছিলাম। তবে পরে তারা চিকিৎসকের দ্বারস্থ হয়েছেন।

খবর পেয়ে আজ শুক্রবার ওই বাড়িতে পৌঁছয় পুলিশ এবং পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের সদস্যরা। এ বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের সদস্য দিব্যজ্যোতি দাস বলেন, ‘আমরা খবর পেয়ে এখানে চলে এসেছি। এরকম ঘটনা প্রায়ই ঘটে থাকে। তবে অনেক ক্ষেত্রেই ওঝা, তান্ত্রিকের আশ্রয় নেওয়ার ফলে প্রাণ যাওয়ার ঘটনা পর্যন্ত ঘটে থাকে। তবে এই ঘটনায় প্রমাণিত হচ্ছে যে শহরাঞ্চলেও এখনও কুসংস্কার রয়েছে। আমরা এ নিয়ে সচেতনতা চালাচ্ছি। কিশোরের পরিবারকে চিকিৎসকের দ্বারস্থ হতে বলেছি আমরা।’

বাংলার মুখ খবর

Latest News

‘ওদের উপর এবার…’ আরমানের বহুগামিতার প্রভাব পড়ছে সন্তানদের উপর, দাবি পায়েলের সুপ্রিম কোর্টের নির্দের পরই শহর ও সেন্টার ধরে ধরে NEET UG-র ফল প্রকাশ NTA-র কৃষ্ণনগরে মাছ ব্যবসায়ীরকে গুলি করে টাকা ছিনতাই, ধৃত তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতাসহ ২ হাতে জয়ন্তর ট্যাটু! আড়িয়াদহকাণ্ডে গ্রেফতার আরেক কালপ্রিট রাহুল গুপ্ত 'সাহস থাকলে…' হাসিনের সঙ্গে সুখের হয়নি বিয়ে, সানিয়াকে সত্যিই বিয়ে করছেন শামি প্রথমেই সূর্যের কথা বলেননি গম্ভীর, হার্দিক ক্যাপ্টেন না হওয়ার কারণ একেবারেই অন্য ‘তোর বাপ আমি ***’, ‘চোর’ শুনে বললেন শুভেন্দু, জুতো দেখিয়ে বললেন ‘নোংরা কালচার’ ভিকি-তৃপ্তির নতুন ছবি ‘ব্যাড নিউজ’-এর সঙ্গে বিশেষ যোগ সুস্মিতা সেনের! কী বলুন তো জেনে নিন শ্রাবণ মাসে ভোলেনাথের আশীর্বাদ পেতে কী করবেন আর কী করবেন না শক্তি বাড়াল নিম্নচাপ, দক্ষিণবঙ্গের কোথায় কবে ভারী বৃষ্টি হতে চলেছে?

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.