বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিশ্বভারতীয় অধ্যাপকের সাসপেনশনের মেয়াদ বেড়ে গেল, ছাঁটাইয়ের পথে এগোচ্ছে?
বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য
বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য

বিশ্বভারতীয় অধ্যাপকের সাসপেনশনের মেয়াদ বেড়ে গেল, ছাঁটাইয়ের পথে এগোচ্ছে?

  • ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলনের পাশে দেখা গিয়েছিল তাঁকে

আরও একমাস বাড়িয়ে দেওয়া হল বিশ্বভারতীর অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের সাসপেনশন। একে তো মাসের পর মাস ধরে তিনি সাসেপনশনের মধ্যে রয়েছে। এর সঙ্গেই গত মাসেই এক সপ্তাহে অন্তত দুবার তাঁকে শোকজ করা হয়েছে। এবার বেড়ে গেল সেই অধ্যাপকের সাসপেনশনের মেয়াদ। আর এর সঙ্গেই সেই প্রশ্নটাও অবধারিতভাবে উঠে এল, ছাঁটাইয়ের পথে কি আরও একধাপ এগিয়ে গেল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ? বিশ্বভারতী সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৫ অক্টোবর তাঁর নামে চিঠি ইস্য়ু করা হয়েছে। আগামী ৬ই নভেম্বর পর্যন্ত তাঁর সাসপেনশনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগের তদন্ত এখনও শেষ হয়নি। তার জেরেই এই সাসপেনশনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে বিশ্বভারতী চিঠিতে উল্লেখ করেছে। নিয়োগ সংক্রান্ত প্রক্রিয়ায় প্রকাশ্যে আপত্তি তোলা সহ নানা কারণে তাঁকে সাসপেনশেনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

 

এদিকে অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের সাসপেনশনের মেয়াদ ফের এক মাস বাড়িয়ে দেওয়ার জেরে নানা মহলে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অনেকেই সংশয় প্রকাশ করছেন যে অধ্যাপককে ছাঁটাই করার জন্য সম্ভবত বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ চিন্তাভাবনা করছে। এদিকে সম্প্রতি ছাত্র আন্দোলনের জেরে তপ্ত হয়ে উঠছিল বিশ্বভারতী প্রাঙ্গন। তিনজন পড়ুয়াকে সাসপেন্ড করার জেরে সেই আন্দোলন ক্রমেই বাড়তে থাকে। শেষ পর্যন্ত এর জল আদালত পর্যন্ত গড়ায়। তবে এসবের মধ্যেই পড়ুয়াদের আন্দোলনে পাশে দাঁড়াতে দেখা যায় অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যকে। এরপর শোকজও করা হয় অধ্যাপককে। সেই সময় তিনি জানিয়েছিলেন, এটা প্রতিহিংসাপরায়ণ একটি পদক্ষেপ। উনি ( উপাচার্য) যাঁকে পছন্দ করেন না তাঁর বিরুদ্ধেই এমন পদক্ষে নিচ্ছেন। এদিকে আদালত নির্দেশ দিয়েছে পড়ুয়াদের ক্লাসে ফেরানোর। এনিয়ে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে পড়ুয়ারা। কিন্তু অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে অধ্যাপকের উপর সাসপেনশনের মেয়াদ আরও খানিকটা বাড়ল।

 

বন্ধ করুন