বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > খাবারে বিষ মিশিয়ে খুন বাঘরোল! অভিযুক্তদের খোঁজ দিতে পারলেই দেওয়া হবে পুরস্কার
খাবারে বিষ মিশিয়ে খুন বাঘরোল! অভিযুক্তদের খোঁজ দিতে পারলেই দেওয়া হবে পুরস্কার। ছবি, সৌজন্যে ফেসবুক।
খাবারে বিষ মিশিয়ে খুন বাঘরোল! অভিযুক্তদের খোঁজ দিতে পারলেই দেওয়া হবে পুরস্কার। ছবি, সৌজন্যে ফেসবুক।

খাবারে বিষ মিশিয়ে খুন বাঘরোল! অভিযুক্তদের খোঁজ দিতে পারলেই দেওয়া হবে পুরস্কার

  • গত বুধবার বাগনানের কালিকাপুরে রাস্তার ধারে বাঘরোলের দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

কুকুরের পর এবার খাবারে বিষ মিশিয়ে তিনটি বাঘরোল হত্যার অভিযোগ উঠল। গত বুধবার বাগনানের কালিকাপুরে রাস্তার ধারে বাঘরোলের দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। বাঘরোলগুলোর পা দড়ি দিয়ে বাধা ছিল। তাদের দেহের ময়নাতদন্তের পর বনদফতরের কর্মীরা জানতে পেরেছেন, খাবারে বিষ মিশিয়ে সেগুলিকে হত্যা করা হয়েছে। তবে এই ঘটনার পিছনে পাচার চক্র জড়িয়ে আছে, নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে তা এখনও জানা যায়নি।

এদিকে, বাঘরোলগুলি হত্যার ঘটনায় দুজনের নাম জানতে পেরেছে বনদফতর। এই দুজনের নাম হল প্রতাপ পাত্র এবং প্রভাস পাত্র। তারাই খাবারে বিষ মিশিয়ে বাঘরোল তিনটিকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। দুজনের নাম জানতে পারার পরেই তাদের খোঁজ চালাচ্ছে বনদফতর। জানা গিয়েছে, ওই দু'জনের খোঁজ দেওয়ার জন্য পুরস্কারের কথা ঘোষণা করেছে বনদফতর। শনিবারই এই পুরস্কারের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। এ বিষয়ে বনদফতরের উলুবেড়িয়ার রেঞ্জার রাজেশ মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, 'কেউ অভিযুক্ত দুই ব্যক্তির খোঁজ দিতে পারলে তাদেরকে পুরস্কৃত করা হবে।'

অন্যদিকে, বন্যপ্রাণী হত্যার ঘটনায় সরব হয়েছেন পশুপ্রেমী সংগঠনগুলি। তারা দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। প্রসঙ্গত, বন্যপ্রাণী হত্যা রুখতে নিয়মিত প্রচার চালাচ্ছে বনদফতর। আগামী দিনে আরও বেশি করে প্রচার চালানো হবে বলে রেঞ্জার অফিসার জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই জলপাইগুড়িতে খাবারে বিষ মিশিয়ে চারটি কুকুর এবং ১০টি পাখি হত্যা করা হয়েছিল। সেই ঘটনাতেও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

বন্ধ করুন