বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিষ খেয়ে আত্মঘাতী একই পরিবারের তিনজন, পাড়ুইয়ে পারিবারিক অশান্তির জের
বিষ খেয়ে একই পরিবারের তিনজন আত্মঘাতী হলেন।

বিষ খেয়ে আত্মঘাতী একই পরিবারের তিনজন, পাড়ুইয়ে পারিবারিক অশান্তির জের

  • সূত্রের খবর, মৃতদের পরিবারে হামেশাই অশান্তি লেগে থাকত। প্রশান্ত পাত্রের মায়ের সঙ্গেও তাঁদের ভালো সম্পর্ক ছিল না। তাঁদের পরিবারের ওপর প্রশান্ত পাত্রের মা মানসিক নির্যাতনও করত বলে অভিযোগ। আত্মহত্যার পিছনে এই কারণ আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বীরভূমের পাড়ুই এলাকায় বিষ খেয়ে একই পরিবারের তিনজন আত্মঘাতী হলেন। এই ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে। পারিবারিক অশান্তির জেরেই বিষ খেয়ে একই পরিবারের তিনজন আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের পাড়ুই থানার মহুলা গ্রামে। সোমবার মাঝরাতে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

ঠিক কী ঘটেছে পাড়ুই এলাকায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, গ্রামেরই বাসিন্দা প্রশান্ত পাত্র তাঁর স্ত্রী তৃপ্তি পাত্র এবং ছেলে দীপ পাত্র একসঙ্গে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন। এই তিনজনকেই বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। এভাবে একসঙ্গে আত্মহত্যা করার ঘটনায় হতবাক বীরভূমের পাড়ুই থানা এলাকায় মহুলা গ্রামের বাসিন্দারা। পারিবারিক অশান্তির জেরেই এই আত্মহত্যা বলে মনে করা হচ্ছে।

ঠিক কী তথ্য পেয়েছে পুলিশ?‌ পুলিশ সুত্রে খবর, মৃতদেহগুলির পাশে মিলেছে একটি সুইসাইড নোট। সেখানে তাদের এই পদক্ষেপের জন্য ৭জন ব্যক্তিকে দায়ী করেছেন প্রশান্ত পাত্র ও তাঁর পরিবার। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। ঠিক কী কারণে তাঁরা এই পদক্ষেপ নিলেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে। দেহগুলি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ সূত্রের খবর, মৃতদের পরিবারে হামেশাই অশান্তি লেগে থাকত। প্রশান্ত পাত্রের মায়ের সঙ্গেও তাঁদের ভালো সম্পর্ক ছিল না। তাঁদের পরিবারের ওপর প্রশান্ত পাত্রের মা মানসিক নির্যাতনও করত বলে অভিযোগ। আত্মহত্যার পিছনে এই কারণ আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই অশান্তির জেরে প্রশান্ত, স্ত্রী তৃপ্তি এবং ছেলে দীপকে নিয়ে আত্মহত্যা করার জন্য বিষ খান। প্রতিবেশীরা তাঁদের উদ্ধার করে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে স্ত্রী ও ছেলেকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। তারপরেই মারা যান প্রশান্তও।

বন্ধ করুন