বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মিরজাফর কে তা সময় বলবে, ফিরহাদের পালটা দিব্যেন্দু অধিকারী
তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি
তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি

মিরজাফর কে তা সময় বলবে, ফিরহাদের পালটা দিব্যেন্দু অধিকারী

  • শুভেন্দুর নাম না করে ফিরহাদ বলেন, ‘মিরজাফর আগেও ছিল, এখনো আছে।’

সময় যত গড়াচ্ছে ততই তীব্র হচ্ছে তৃণমূলের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর বাগযুদ্ধ। নাম না করে দুপক্ষই পরস্পরকে বিঁধছেন বাছাই করা বিশেষণে। জবাবও মিলছে সমান মাপে। যেমন দাদা শুভেন্দুর হয়ে ফিরহাদ হাকিমকে নাম না করে বিঁধলেন ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী। 

মঙ্গলবার নন্দীগ্রাম দিবসে শুভেন্দুর সভা ও তৃণমূলের পালটা সভার পর দুপক্ষের দ্বন্দ্ব অন্য মাত্রায় পৌঁছেছে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচ্ছন্নে নন্দীগ্রাম আন্দোলনকে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছেন শুভেন্দু। বলেছেন, ‘চেনা বামুনের পৈতে লাগে না।’

পালটা সভায় শুভেন্দুর নাম না করে ফিরহাদ বলেন, ‘মিরজাফর আগেও ছিল, এখনো আছে।’ ফিরহাদের এই উক্তির জবাবে দিব্যেন্দুবাবু বলেন, ‘মিরজাফর কে তার জবাব সময় দেবে। আমি যা বলার দলীয় নেতৃত্বকে বলব।’

সঙ্গে তমলুকের সাংসদের দাবি, ‘তৃণমূলের সভা নিয়ে আমার কাছে কোনও খবর ছিল না। আমি ওই সভায় আমন্ত্রণ পাইনি। সভায় কারা হাজির থাকবেন তাও জানতাম না। আমন্ত্রণ পেলে নিশ্চই যেতাম।’

শুভেন্দু অধিকারীর প্রতিটি মন্তব্যের ওপর কড় নজর রয়েছে তৃণমূল-সহ সমস্ত রাজনৈতিক দলের। তবে এবার দাদার হয়ে ব্যাটন ধরলেন ভাই। বুঝিয়ে দিলেন লড়াইয়ে একা নন তমলুকের বিধায়ক তথা রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী।

 

বন্ধ করুন