বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‌নন্দীগ্রামে শুভেন্দুু-ঘনিষ্ঠ পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনল তৃণমূল
তৃণমূলে। (ছবি সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
তৃণমূলে। (ছবি সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)

‌নন্দীগ্রামে শুভেন্দুু-ঘনিষ্ঠ পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনল তৃণমূল

বিধানসভা ভোটের মুখে বিজেপিতে যোগ দেন বয়াল ১ নম্বর পঞ্চায়েত প্রধান পবিত্র কর।তিনি আবার খোদ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ বলেই জানা গিয়েছে।

বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম কেন্দ্রটি হাতছাড়া হয়েছে তৃণমূলের। ভোটের পর সেই নন্দীগ্রামের বয়াল ১ নম্বর পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনেছে তৃণমূল।সোমবার এই অনাস্থা প্রস্তাব গৃহীত হওয়ার পর দফায় দফায় পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়েছে, বয়াল ১ নম্বর পঞ্চায়েত প্রধান এলাকার বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত।

বিধানসভা ভোটের মুখে বিজেপিতে যোগ দেন বয়াল ১ নম্বর পঞ্চায়েত প্রধান পবিত্র কর।তিনি আবার খোদ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ বলেই জানা গিয়েছে।এই কারণে দলবিরোধী কাজের অভিযোগে এবার পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনল তৃণমূলের আটজন সদস্য।

উল্লেখ্য, এই বয়াল গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট সদস্য সংখ্যা ১০ জন।এই বয়ালেই ভোটের দিন ব্যাপক কারচুপি ও সন্ত্রাসের অভিযোগ করেছিল তৃণমূল।ভোটের দিন বয়ালের একটি বুথের ক্যাম্পাসে গিয়ে প্রায় দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় বসেছিলেন এই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য, এবারের ভোটে সবার নজরে ছিল এই নন্দীগ্রাম কেন্দ্রটি।এই কেন্দ্র থেকেই বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী।শুভেন্দু অধিকারীর থেকে খুবই কম ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।যদি তৃণমূল নেত্রীর এই ভোটে হারা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন।অনেকেরই অভিযোগ, গণনায় কারচুপি করে হারানো হয়েছে তৃণমূল নেত্রীকে।এমনকি রিটার্নিং অফিসারকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।সবমিলিয়ে বিজেপিকে হারিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয়বারের জন্য রাজ্যে ক্ষমতায় এলেও নন্দীগ্রাম কাণ্ড এখনও তৃণমূলের কাছে গভীর ক্ষতের মতো হয়ে রয়েছে।এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে বয়ালের পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা যে অবশ্যম্ভাবী ছিল তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

বন্ধ করুন