বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অপসারিত শহর তৃণমূল সভাপতিকে ‘জগদ্দল পাথর’ বলে কটাক্ষ দলেরই নেতার
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

অপসারিত শহর তৃণমূল সভাপতিকে ‘জগদ্দল পাথর’ বলে কটাক্ষ দলেরই নেতার

  • জেলা তৃণমূলের অন্দরমহল সূত্রের খবর, মধুরিমাদেবী অধিকারী পরিবারের ঘনিষ্ঠ। তাঁর অপসারণের পর হলদিয়ায় অধিকারী পরিবারের বিরোধী গোষ্ঠী সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সরাসরি আক্রমণ শানিয়েছে প্রাক্তন শহর সভাপতিকে।

হলদিয়ার শহর তৃণমূল সভাপতি বদল নিয়ে পূর্ব মেদিনীপুরে প্রকাশ্যে চলে এল তৃণমূলের ঘরোয়া কোন্দল। অপসৃত নেত্রীকে ‘জগদ্দল পাথর’ বলে কটাক্ষ করলেন তৃণমূলেরই নেতা। যা নিয়ে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে নালিশ জানিয়েছেন ওই নেত্রী। 

সম্প্রতি পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূলে সাংগঠনিক রদবদল হয়। তাতে হলদিয়া শহর তৃণমূল সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেওয় হয় মধুরিমা মণ্ডলকে। তাঁর বদলে ওই পদে বসেন হলদিয়া পুরসভার উপ পুরপ্রধান সুধাংশু মণ্ডল। এর পরই মধুরিমাদেবীকে ‘জগদ্দল পাথর’ বলে কটাক্ষ করেন শহর তৃণমূল সহ সভাপতি দেবপ্রসাদ মণ্ডল। 

জেলা তৃণমূলের অন্দরমহল সূত্রের খবর, মধুরিমাদেবী অধিকারী পরিবারের ঘনিষ্ঠ। তাঁর অপসারণের পর হলদিয়ায় অধিকারী পরিবারের বিরোধী গোষ্ঠী সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সরাসরি আক্রমণ শানিয়েছে প্রাক্তন শহর সভাপতিকে। 

দেবপ্রসাদবাবু বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই মধুরিমাদেবীর অপসারণ চাইছিলাম। আমাদের দাবি ছিল ব্লকের কাউকে সভাপতি করা হোক। ওনাকে কাঁথি থেকে এনে বসানো হয়েছিল। ওর সঙ্গে অনেক চেষ্টা করেও কাজ করতে পারিনি। জগদ্দল পাথর সরেছে।’

দেবপ্রসাদবাবুর মন্তব্য ব্যাথিত মধুরিমাদবী দলের রাজ্য নেতৃত্বের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘চার বছর পদে ছিলাম। কখনো কাউকে অসম্মান করিনি। আজ পদ থেকে সরতেই আমাকে অপমান করা হচ্ছে।’

এই নিয়ে তৃণমূলকে আক্রমণ করেছে বিজেপি। তাদের দাবি, তৃণমূলে পদের কোনও দাম নেই। সবই উপরমহলকে খুশি করার চেষ্টা। কে কত দুর্নীতি করতে পারবে তার প্রতিযোগিতা। কদিন পর দলটাই থাকবে না। তার আবার পদ...

বলে রাখি, পূর্ব মেদিনীপুরে বেশ কিছুদিন ধরে তৃণমূলে অধিকারী গোষ্ঠী ও তাদের বিরোধী গোষ্ঠীর সংঘাত চলছে। এর আগে হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদের সভাপতির পদ থেকে সরানো হয়েছিল খোদ সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারীকে।

 

বন্ধ করুন