বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দলের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে কালনার ১৭ কাউন্সিলরকেই

দলের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে কালনার ১৭ কাউন্সিলরকেই

সোমবার কলকাতায় আসার জন্য বাসে উঠছেন তৃণমূল কাউন্সিলররা। নিজস্ব চিত্র

গত ১৬ মার্চের ঘটনার জন্য ১৭ কাউন্সিলরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিঃশর্ত ক্ষমাপ্রার্থনা করে চিঠি দেবেন। তার মধ্যে রয়েছেন বহিষ্কৃত কাউন্সিলর তপন পোড়েলও।

কালনায় তৃণমূলের বোর্ড গঠনে প্রকাশ্যে দলীয় কোন্দলে জড়িয়ে পড়ায় দলের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে ১৭ জন কাউন্সিলরকেই। সোমবার কলকাতার নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে কাউন্সিলরদের সঙ্গে দলের নেতৃত্বের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে সূত্রের খবর। তবে বৈঠক থেকে বেরিয়ে তৃণমূলের কর্মসমিতির সদস্য অরূপ বিশ্বাস বলেন, ‘উন্নয়নের রূপরেখা ঠিক করতে এই বৈঠক ডাকা হয়েছিল।’

এদিন নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামের বৈঠকে হাজির ছিলেন কালনার ১৭ জন তৃণমূল কাউন্সিলর। ছিলেন জেলা তৃণমূল সভাপতি রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় ও জেলার মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। দলের কর্মসমিতির সদস্য অরূপ বিশ্বাসের পৌরহিত্যে হয় এই বৈঠক।

সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে, গত ১৬ মার্চের ঘটনার জন্য ১৭ কাউন্সিলরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিঃশর্ত ক্ষমাপ্রার্থনা করে চিঠি দেবেন। তার মধ্যে রয়েছেন বহিষ্কৃত কাউন্সিলর তপন পোড়েলও। এর পর তাঁর সাসপেনশন প্রত্যাহারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে দল।

বৈঠক থেকে বেরিয়ে অরূপ বিশ্বাস সাংবাদিকদের বলেন, এটা দলীয় বৈঠক। উন্নয়নের রূপরেখা ঠিক করতে বৈঠক হয়েছে। কী ভাবে দলের সংগঠন আরও মজবুত করা যায় কথা হয়েছে তা নিয়েও।

গত ১৬ মার্চ পুরবোর্ড গঠনের সময় কালনা পুরসভায় ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটে। দলের মনোনীত চেয়ারম্যান আনন্দ দত্তের বিরুদ্ধে প্রার্থী হন তপন পোড়েল। ১২ – ৪ ভোটে আনন্দবাবুকে হারিয়ে দেন তিনি। এর পর নাটকীয় সব দৃশ্য দেখা যায় পুরসভার বারান্দায়। ঘটনার পরই তপন পোড়েলকে দল থেকে বহিষ্কার করে তৃণমূল।

 

বন্ধ করুন