বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আপার প্রাইমারি, গ্রুপ B, গ্রুপ C - চাকরি দেওয়ার নামে টাকা 'তুলতেন' TMC নেতা
চাকরি দেওয়ার নামে দলের নেতাদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
চাকরি দেওয়ার নামে দলের নেতাদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)

আপার প্রাইমারি, গ্রুপ B, গ্রুপ C - চাকরি দেওয়ার নামে টাকা 'তুলতেন' TMC নেতা

দলের নেতাদের আরও অভিযোগ, চাকরি দেওয়ার নামে সোমনাথ বেরা তমলুক ব্লকের প্রায় ৩৫ জনের কাছ থেকে প্রায় ২ কোটিরও বেশি টাকা তুলেছেন।

সরকারি চাকরি দেওয়ার নামে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ উঠল তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। দলেরই অন্যান্য নেতাদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তৃণমূল সম্পাদক তথা প্রাক্তন পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সোমনাথ বেরার বিরুদ্ধে। দলেরই একাংশ নেতারা তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন যে, কাউকে গ্রুপ 'সি' তো কাউকে গ্রুপ 'ডি', আবার কাউকে আপার প্রাইমারির শিক্ষক পদে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছেন তিনি। অভিযোগকারীরা পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তমলুক ব্লকের কেউ অঞ্চল সভাপতি কেউ বুথ সভাপতি তো কেউ প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য।এবার অভিযুক্ত নেতার বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকি দিয়েছেন প্রতারিত নেতারা।

তমলুক ব্লকের নীলকুণ্ঠ্যা অঞ্চলের বুথ সভাপতি আশিস মান্নার অভিযোগ, তাঁর আত্মীয়কে চাকরি দেওয়ার নামে ১৩ লক্ষ টাকা নিয়েছেন সোমনাথ। আবার অনন্তপুর ১ নম্বর অঞ্চল সভাপতি চাকরি পাওয়ার জন্য ২১ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন অভিযুক্তকে। ওদিকে তমলুক ব্লকের প্রাক্তন যুব সভাপতি শশধর সামন্ত নিজের ছেলের চাকরির জন্য সোমনাথকে ১৬.৫০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন বলে দাবি তাঁর।

দলের নেতাদের আরও অভিযোগ, চাকরি দেওয়ার নামে সোমনাথ বেরা তমলুক ব্লকের প্রায় ৩৫ জনের কাছ থেকে প্রায় ২ কোটিরও বেশি টাকা তুলেছেন। অভিযোগ, চাকরি পাওয়া তো দুরস্থ বিপুল পরিমাণে তোলা সেই টাকা কাউকেই ফেরত দেননি ওই অভিযুক্ত নেতা। শুধু তাই নয়, বেশ কয়েক বার টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও তা দেয়নি অভিযুক্ত। চাপে পড়ে কিছু চেক দিলেও সেগুলি বাউন্স করে গিয়েছে বলে অভিযোগ। এই নিয়ে একাধিক বার তৃণমূল নেতৃত্বকে জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। এবার অভিযুক্ত নেতার বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকি দিয়েছেন প্রতারিত নেতারা। তৃণমূলের অন্দরে এই দুর্নীতির ঘটনাকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিজেপি।

বন্ধ করুন