বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দিনে-দুপুরে তৃণমূলের পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষকে খুনের চেষ্টা
আহত দুলাল ভট্টাচার্য
আহত দুলাল ভট্টাচার্য

দিনে-দুপুরে তৃণমূলের পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষকে খুনের চেষ্টা

ধস্তাধস্তি চলাকালীনই সেখানে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। এতে পালায় দুষ্কৃতীরা। স্থানীয়রা দুলালবাবুকে উদ্ধার করে স্বরূপনগর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান।

ফের রাজ্যে শাসকদলের নেতার ওপর দুষ্কৃতী হামলা। আমফান বিধ্বস্ত পরিস্থিতির মধ্যেই খুনের চেষ্টা হল তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষের ওপর। স্থানীয়দের বাধায় কোনও ক্রমে প্রাণে বাঁচলেন তৃণমূল নেতা। ঘটনায় চাঞ্চল্য উত্তর ২৪ পরগনার স্বরূপনগরে। 

বুধবার দুপুর ১২টা নাগাদ আমফান মোকাবিলা নিয়ে বৈঠক করতে স্বরূপনগর পঞ্চায়েত সমিতিতে যাচ্ছিলেন জনস্বাস্থ্য – কারিগরি কর্মাধ্যক্ষ দুলাল ভট্টাচার্য। গোবিন্দপুরে নিজের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে পঞ্চায়েত সমিতির দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। তখন শাঁড়াপুল বাজার এলাকায় তাঁর বাইক ঘিরে ধরে ২টি মোটরসাইকেলে থাকা ৪ দুষ্কৃতী। আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে বেধড়ক মারধর শুরু করে তাঁকে। 

ধস্তাধস্তি চলাকালীনই সেখানে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। এতে পালায় দুষ্কৃতীরা। স্থানীয়রা দুলালবাবুকে উদ্ধার করে শাঁড়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান। তাঁর মাথায় গুরুতর আঘাত লেগেছে বলে জানা গিয়েছে। 

ঘটনায় স্বরূপনগর থানায় ৪ দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে FIR হয়েছে। কেন দুলালবাবুর ওপর হামলা হল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। দুষ্কৃতীদের এখনো ধরতে পারেনি তারা।

বলে রাখি, বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া স্বরূপনগরে ভরা তৃণমূল জমানাতেও সিপিএমের প্রভাব বেশ ভাল ছিল। সম্প্রতি সেখানে বিজেপি বাড়ছে বলে খবর।

 

ফের রাজ্যে শাসকদলের নেতার ওপর দুষ্কৃতী হামলা। আমফান বিধ্বস্ত পরিস্থিতির মধ্যেই খুনের চেষ্টা হল তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষের ওপর। স্থানীয়দের বাধায় কোনও ক্রমে প্রাণে বাঁচলেন তৃণমূল নেতা। ঘটনায় চাঞ্চল্য উত্তর ২৪ পরগনার স্বরূপনগরে। 

বুধবার দুপুর ১২টা নাগাদ আমফান মোকাবিলা নিয়ে বৈঠক করতে স্বরূপনগর পঞ্চায়েত সমিতিতে যাচ্ছিলেন জনস্বাস্থ্য – কারিগরি কর্মাধ্যক্ষ দুলাল ভট্টাচার্য। গোবিন্দপুরে নিজের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে পঞ্চায়েত সমিতির দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। তখন সাড়াপুল বাজার এলাকায় তাঁর বাইক ঘিরে ধরে ২টি মোটরসাইকেলে থাকা ৪ দুষ্কৃতী। আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে বেধড়ক মারধর শুরু করে তাঁকে। 

ধস্তাধস্তি চলাকালীনই সেখানে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। এতে পালায় দুষ্কৃতীরা। স্থানীয়রা দুলালবাবুকে উদ্ধার করে স্বরূপনগর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান। তাঁর মাথায় গুরুতর আঘাত লেগেছে বলে জানা গিয়েছে। 

ঘটনায় স্বরূপনগর থানায় ৪ দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে FIR হয়েছে। কেন দুলালবাবুর ওপর হামলা হল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। দুষ্কৃতীদের এখনো ধরতে পারেনি তারা।

বলে রাখি, বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া স্বরূপনগরে ভরা তৃণমূল জমানাতেও সিপিএমের প্রভাব বেশ ভাল ছিল। সম্প্রতি সেখানে বিজেপি বাড়ছে বলে খবর।

 

 

বন্ধ করুন