বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > তৃণমূলে যোগ দিয়েও মিলল না রেহাই, কালনায় যুবককে কোপানোর অভিযোগ তৃণমূলেরই বিরুদ্ধে
হাসপাতালে আক্রান্ত কুতুবুদ্দিন।
হাসপাতালে আক্রান্ত কুতুবুদ্দিন।

তৃণমূলে যোগ দিয়েও মিলল না রেহাই, কালনায় যুবককে কোপানোর অভিযোগ তৃণমূলেরই বিরুদ্ধে

  • কুতুবুদ্দিনের আর্তনাদ শুনে সেখানে থাকা এক সিভিক ভলান্টিয়ার ছুটে এলে দুষ্কৃতীরা পালায়। এর পর আক্রান্তকে ভর্তি করা হয় হাসপাতা।

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েও মিলল না রেহাই। পূর্ব বর্ধমানে তৃণমূলি দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হলেন সদ্য দলে যোগ দেওয়া এক যুবক। কুতুবু্দ্দিন শেখ নামে ওই ব্যক্তিতে বুধবার রাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠেছে। আক্রান্ত যুবককে সমাজবিরোধী বলে উল্লেখ করেছেন স্থানীয় ব্লক তৃণমূল সভাপতি।

দিন কয়েক আগে মুখ্যমন্ত্রীর ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলের জয় হিন্দ বাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন কুতুবুদ্দিন। অভিযোগ, তার পর থেকে তাঁকে শাসাচ্ছিল তৃণমূলেরই একাংশ। বুধবার রাত ১১টা নাগাদ কালনা ২ নম্বর ব্লকের কদম্বা গ্রামে বাড়ি ফেরার সময় পথে হামলার মুখে পড়েন তিনি। অভিযোগ তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে প্রথমে তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায়। তার পর তাঁকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটায় তারা।

কুতুবুদ্দিনের আর্তনাদ শুনে সেখানে থাকা এক সিভিক ভলান্টিয়ার ছুটে এলে দুষ্কৃতীরা পালায়। এর পর আক্রান্তকে ভর্তি করা হয় হাসপাতা। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাঁর হাতে পায়ে একাধিক জায়গায় গভীর ক্ষত তৈরি হয়েছে।

সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে কালনা ২ নম্বর ব্লক সভাপতি প্রণব রায় জানান, ‘কুতুবউদ্দিন শেখ একজন সমাজবিরোধী। একটা সময় এলাকার মানুষের ওপর অত্যাচার করেছে। এই ঘটনা সেই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। এর সঙ্গে দলের কোন যোগ নেই’। ব্লক সভাপতির কথায় প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি একজন সমাজবিরোধীকে দলে যোগদান করিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীর ভাই?

 

বন্ধ করুন