বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌দিলীপবাবু ভুলভাল যোগাসন করে পাবলিককে মনোরঞ্জন দেন’‌, কটাক্ষ বাবুলের
বাবুল সুপ্রিয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
বাবুল সুপ্রিয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

‘‌দিলীপবাবু ভুলভাল যোগাসন করে পাবলিককে মনোরঞ্জন দেন’‌, কটাক্ষ বাবুলের

  • বারাবনির পাঁচগাছিয়া এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে দলের সাংগঠনিক সভায় যোগ দেন।

ত্রিপুরা সফরে গিয়েছিলেন। কিন্তু কোনও দলীয় সভা করেননি। এবার তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানের পর এই প্রথম দলীয় সাংগঠনিক সভা করলেন তিনি। হ্যাঁ, তিনি প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। বুধবার বারাবনির পাঁচগাছিয়া এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে দলের সাংগঠনিক সভায় যোগ দেন। সেখানে সবাইকে তৈরি থাকতে বলেন। কারণ এখানে বড় কোনও সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে তিনি দলের নেতা, কর্মীদের জানিয়েছেন।

এই দলীয় সাংগঠনিক সভায় উপস্থিত ছিলেন আইএনটিটিইউসি’‌র জেলা সভাপতি অভিজিৎ ঘটক, জামুড়িয়া বিধানসভার বিধায়ক হরে রাম সিং, বারাবনির বিধায়ক তথা তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি বিধান উপাধ্যায়, মহিলা জেলা সভানেত্রী মিনতি হাজরা–সহ অন্যান্যরা। সকলের সঙ্গে বৈঠক করে এখানের সাংগঠনিক ভিত মজবুত করতে বলেন বাবুল।

এদিন কলকাতা থেকে তিন ঘণ্টা সফর করে আসানসোল জুবলি মোড়ে তার কনভয় এসে থামে। গাড়ি থেকে নেমে খোলা মেজাজে বাবুল মোটরসাইকেল চালিয়ে পাঁচগাছিয়া দলীয় কার্যালয় পৌঁছন। বাবুল দলের ছেলেদের তাঁর প্রতি ভালোবাসা দেখে আনন্দিত হন। আর বলেন, ‘‌অনেকদিন বাদে মুক্ত বাতাসে যেন নিঃশ্বাস নিচ্ছি।’‌ আসলে বিজেপিতে দমবন্ধ করা পরিবেশ বোঝাতেই এমন মন্তব্য করেছেন বাবুল বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে এদিন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, ‘‌দিলীপবাবু হাস্যকর বস্তু। তার কথা বেশি না বলাই ভালো। তিনি ভুলভাল যোগাসন করে পাবলিককে মনোরঞ্জন দেন। এটা ঠিক, এটাতে আমরাও আনন্দিত হই। রাজনীতিতে এইরকম লোক না থাকলে মজা পাওয়া যায় না।’‌ সম্প্রতি দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেছিলেন, ‘‌বাবুল সুপ্রিয়ই প্রকৃত সর্বহারা।’‌

বন্ধ করুন