বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ক্যানিংয়ের পর রাজগঞ্জ, রাজ্যে গুলিবিদ্ধ আরও ১ তৃণমূল নেতা
নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হয়েছে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল নেতা সোলেমান আলিকে। 
নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হয়েছে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল নেতা সোলেমান আলিকে। 

ক্যানিংয়ের পর রাজগঞ্জ, রাজ্যে গুলিবিদ্ধ আরও ১ তৃণমূল নেতা

  • গুরুতর আহত অবস্থায় সোলেমান আলিকে শিলিগুড়ি লাগোয়া ফুলবাড়ির একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে স্থানান্তর করা হয় শিলিগুড়ির আরেকটি নার্সিংহোমে।

শনিবারের পর রবিবার। রাজ্যে গুলিবিদ্ধ আরও এক তৃণমূল নেতা। রবিবার রাতে জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জে গুলিবিদ্ধ হলেন তৃণমূল নেতা সোলেমান আলি (৫৫)। রায়গঞ্জেক ভুটকি গন্ডার মেড়ে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। গুলি লেগেছে তাঁর মাথায়। গুলি লেগেছে আরও এক ব্যক্তির। দুজনকেই শিলিগুড়ির নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, রবিবার সন্ধ্যায় রাজগঞ্জের ভুটকিগন্ডার মোড়ে একটি লটারির দোকানে বসে ছিলেন সোলেমান আলি। তখন ২ দুষ্কৃতী মোটরসাইকেলে করে আসে। একজন মোটরসাইকেল থেকে নেমে সোলেমানকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। গুলি লাগে তৃণমূল নেতার মাথায়। অরেকটি গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে লাগে লটারির দোকানদারের গায়ে। দুজনেই ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়েন। ততক্ষণে মোটরসাইকেলে করে অন্ধকারে গা ঢাকা দেয় ২ দুষ্কৃতী।

গুরুতর আহত অবস্থায় সোলেমান আলিকে শিলিগুড়ি লাগোয়া ফুলবাড়ির একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে স্থানান্তর করা হয় শিলিগুড়ির আরেকটি নার্সিংহোমে। তাঁর অবস্থা গুরুতর বলে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, সোলেমান আলির উত্তর দিনাজপুরে একাধিক চা বাগান রয়েছে। দলের প্রভাবশালী নেতা হিসাবে পরিচিত তিনি। কারা তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালাল তা জানা যায়নি। গুলি চালানোর পিছনে ব্যবসায়িক না রাজনৈতিক কারণ রয়েছে তা জানতে তদন্তে নেমেছে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ।

বলে রাখি, শনিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের নিকারিঘাটায় গুলিবিদ্ধ হন তৃণমূল নেতা মহরম শেখ। রাতে SSKM হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর।

বন্ধ করুন