বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'অবৈধ সম্পর্ক' নিয়ে নীতি পুলিশি, তৃণমূল নেতার সালিশি সভায় নির্যাতিত মা-মেয়ে
তৃণমূল নেতার সালিশি সভায় নির্যাতিত মা-মেয়ে (ছবিটি প্রতীকী)
তৃণমূল নেতার সালিশি সভায় নির্যাতিত মা-মেয়ে (ছবিটি প্রতীকী)

'অবৈধ সম্পর্ক' নিয়ে নীতি পুলিশি, তৃণমূল নেতার সালিশি সভায় নির্যাতিত মা-মেয়ে

  • ডায়মন্ড হারবার পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলার তথা কো-অর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে নীতি পুলিশি করার অভিযোগ উঠেছে।

'অবৈধ সম্পর্ক' থাকার অভিযোগে তৃণমূল নেতার নীতি পুলিশির শিকার মহিলা। ডায়মন্ড হারবার পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলার তথা কো-অর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে অভিযোগ, মহিলার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পর্কের অপবাদ এনে সালিশি সভা ডাকেন তিনি। সেই সালিসি সভায় মহিলার উপর নির্যাতন করে সেই কাউন্সিলরের অনুগামীরা। মহিলার মেয়েও নির্যাতনের শিকার হয় বলে অভিযোগ।

জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা মহিলার বয়স ৪৫ বছর। তাঁর এক ছএলে প্রতিবন্ধী। নিজের সেই ছেলেকে খুঁজতে কালীপুজোর সময় স্থানীয় মণ্ডপে গিয়েছিলেন তিনি। ছেলেকে না পেয়ে বাড়ি ফিরে আসেন। মেয়ের সঙ্গে তিনি যখন খেতে বসেন, সেই সময় অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা সদলবলে হানা দেন সেই মহিলার বাড়িতে। অভিযোগ তোলেন, মহিলার অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে।

এরপরই সেই মহিলা ও তাঁর মেয়েকে স্থানীয় মন্দিরে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর তৃণমূল নেতার নেতৃত্বে সালিশি সভা বসিয়ে মহিলাকে পাঁচ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা করা হয় বলে অভিযোগ। মা ও মেয়ের মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় পাড়ার লোকজনেরা। মহিলার স্বামী ও তাঁর প্রতিবন্ধী ছেলেকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এদিকে পুলিশে না যাওয়ার জন্য হুঁশিয়ারি দেওয়া হয় মহিলাকে। তবে পুলিশ ঘটনার খবর পেয়ে নির্যাতিতার স্বামী ও ছেলেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এদিকে দিকে ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটর ওই মহিলা ও তার মেয়ের বিরুদ্ধে পরিকল্পিতভাবে এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি করার জন্য পাল্টা অভিযোগ জানিয়েছেন পুলিশের কাছে।

 

বন্ধ করুন