বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পূর্ব বর্ধমানে তৃণমূল নেতাকে গুলি করে খুন, অভিযোগের তির বিজেপির দিকে
ভরসন্ধ্যায় তৃণমূল নেতাকে গুলি করে খুন। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
ভরসন্ধ্যায় তৃণমূল নেতাকে গুলি করে খুন। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

পূর্ব বর্ধমানে তৃণমূল নেতাকে গুলি করে খুন, অভিযোগের তির বিজেপির দিকে

  • অভিযোগের তির বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীর দিকে।

ভরসন্ধ্যায় তৃণমূল নেতাকে গুলি করে খুন। অভিযোগের তির বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীর দিকে। অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব। সোমবার সন্ধ্যায় চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটে। প্রকাশ্য রাস্তায় গুলি করে খুন করা হয় পূর্ব বর্ধমানের তৃণমূল নেতাকে। রক্তাক্ত অবস্থায় ওই নেতাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। ওই নেতার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মঙ্গলকোট থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই তৃণমূল নেতার নাম অসীম দাস। পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের লাখুড়িয়ার তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি ছিলেন তিনি। মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, চাষাবাদের পাশাপাশি ব্যবসা করতেন অসীমবাবু। বাড়িতে রয়েছেন বিধবা মা, স্ত্রী, পুত্র ও পুত্রবধূ। এক মেয়ের বিয়ে হয়ে গিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সন্ধ্যায় কাশেমনগর থেকে বাইকে করে বাড়ি ফিরছিলেন অসীমবাবু। অভিযোগ উঠেছে, সেই সময় তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় বিজেপির দুষ্কৃতীরা।গুলি গেলে রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তাতেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। তড়িঘড়ি তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও শেষরক্ষা হয়নি।

এই প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব বিজেপির দিকে আঙুল তুলেছে। মঙ্গলকোট ব্লক তৃণমূল সভাপতি অপূর্ব চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, ‘‌বিজেপি ছাড়া কেউ এই খুন করতে পারে না। বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই খুন করেছে আমরা নিশ্চিত।’‌ আবার মঙ্গলকোট পঞ্চায়েত সমিতির পূর্ত কর্মাধক্ষ্য মুন্সি রেজাউল হকের দাবি, অসীম দাসের খুব চেনা বিজেপির কোনও লোকই তাঁকে খুন করেছে। আমরা দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’‌

অন্যদিকে, বিজেপির বর্ধমান পূর্ব (গ্রামীণ) জেলা কমিটির সহসভাপতি অনিল দত্ত বলেন, ‘‌বিজেপি খুনের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরেই এই খুন। আমাদের ওপর মিথ্যা দোষারোপ করা হচ্ছে।’‌

বন্ধ করুন