বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'নির্দল প্রার্থীর সঙ্গে ঘুরতে দেখলে পুলিশ দিয়ে আধ ঘণ্টার মধ্যে জেলে ভরে দেব'
দেবাশিস প্রামাণিক। ফাইল ছবি

'নির্দল প্রার্থীর সঙ্গে ঘুরতে দেখলে পুলিশ দিয়ে আধ ঘণ্টার মধ্যে জেলে ভরে দেব'

  • দলীয় কর্মীদের তিনি নির্দেশ দেন, ‘রাতের মধ্যে সব নির্দলের ঝান্ডা খুলে ফেলুন, ফ্লেক্স ছিঁড়ে ফেলুন। আমি আগামিকাল এসে দেখে যাব। এলাকায় যাতে কোন নির্দল প্রার্থী নির্বাচনী সভা না করতে পারে সেটাও নজর রাখতে হবে।’

শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের নির্বাচনের আগে বিরোধী প্রার্থীদের প্রকাশ্যে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের সদস্য তৃণমূল নেতা দেবাশিস প্রামাণিকের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের চইহাট মুড়িখাওয়া এলাকায় দলীয় কর্মীদের তিনি বলেন, ‘নির্দল প্রার্থীদের সঙ্গে যদি কোনও তৃণমূল কর্মী ঘোরাফেরা করেন আধ ঘণ্টার মধ্যে তার বাড়িতে পুলিশ যাবে। তাকে জেলে পুরে দেওয়া হবে।

ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিয়োয় দেবাশিসবাবুকে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘নির্দল প্রার্থীদের বাড়িতে ঢুকতে দেবেন না। কেউ কিছু বললে আমরা আছি। পুলিশ আমাদের, জেলাশাসক আমাদের, বিডিও আমাদের, এসডিও আমাদের, মুখ্যমন্ত্রী আমাদের। নির্দল প্রার্থীদের সঙ্গে যদি কোনও তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বা কর্মী ঘোরাফেরা করেন, আমাদের কাছে তাঁর নাম পৌঁছে যাবে। তাঁদের বাড়িতে কিন্তু আধঘণ্টার মধ্যে পুলিশ পৌঁছবে, আমি বলে দিয়ে যাচ্ছি। তাঁকে জেলে পুড়ে দেওয়া হবে। নির্দলকে আমরা শেষ করে দেব।’

দলীয় কর্মীদের তিনি নির্দেশ দেন, ‘রাতের মধ্যে সব নির্দলের ঝান্ডা খুলে ফেলুন, ফ্লেক্স ছিঁড়ে ফেলুন। আমি আগামিকাল এসে দেখে যাব। এলাকায় যাতে কোন নির্দল প্রার্থী নির্বাচনী সভা না করতে পারে সেটাও নজর রাখতে হবে।’ দেবাশিসবাবু সাফ কথা, ‘দল করতে হলে তৃণমূল করতে হবে। ঝান্ডা থাকলে শুধু তৃণমূলের ঝান্ডা থাকবে। অন্য কোনও দল থাকবে না। বেশি কিছু বললে, আমার ফোন নম্বর রাখুন, কি করে নির্দলদের জেলে পুরতে হয়, তা আমি দেখো নেব।’

প্রতিক্রিয়ায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, ‘এতদিন একটু ঢাকাচাপা দিয়ে যা চলছিল এখন নীচের তলার তৃণমূল নেতারা সেই পর্দাও তুলে ফেলছেন। পরিষ্কার বলছেন, পুলিশ না থালকে তৃণমূলও নেই’।

 

বন্ধ করুন