বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > যা করতে হয় তা বলতে নেই, ১৯ তারিখ অনেক কথা বলব: রামনগরে জল্পনা বাড়ালেন শুভেন্দু
শুভেন্দু অধিকারী। ছবি সৌজন্য : টুইটার
শুভেন্দু অধিকারী। ছবি সৌজন্য : টুইটার

যা করতে হয় তা বলতে নেই, ১৯ তারিখ অনেক কথা বলব: রামনগরে জল্পনা বাড়ালেন শুভেন্দু

  • অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত বিধায়কের নাম না করে শুভেন্দুর চোখা আক্রমণ— ‘‌কেউ কেউ আবার আসতে পারেন না, তাঁদের অনেক সমস্যা। তাঁরাও আমার খুব পরিচিত। তাঁদেরও উপকারে অনেক সময় লেগেছি।’

‌‘‌আপনারে বড় বলে, বড় সেই নয় /‌ লোকে যারে বড় বলে, বড় সেই হয়’‌— শনিবার পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরে হরিশচন্দ্র মিত্রের লেখা কবিতার এই দুটি পংক্তি শোনা গেল শুভেন্দু অধিকারীর মুখে। প্রতিদিনের মতো ফের এদিন তৃণমূলের সঙ্গে শুভেন্দুর দূরত্ব আরও প্রকট হল। শনিবার রামনগরের তৃণমূল বিধায়ক অখিল গিরির এলাকায় বন্ধুমহল ক্লাবের কালীপুজোর উদ্বোধন করেন শুভেন্দু। অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত বিধায়কের নাম না করে শুভেন্দুর চোখা আক্রমণ— ‘‌কেউ কেউ আবার আসতে পারেন না, তাঁদের অনেক সমস্যা। তাঁরাও আমার খুব পরিচিত। তাঁদেরও উপকারে অনেক সময় লেগেছি।’

‌অনুষ্ঠানের প্রথমে এদিন বেশ হালকা মেজাজে পাওয়া গেল রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে। সকলের সঙ্গে মিলে ঢাক বাজালেন তিনি। মঞ্চে উঠে বার্তা দিলেন সকলের পাশে আছেন। তিনি বলেন, ‘‌ভাল সময়ে কম আসি। খারাপ সময়ে শুভেন্দু কিন্তু পাশে থাকবে।’‌ অনুষ্ঠানে উপস্থিত জনগণের মধ্যে থেকেই এদিন রামনগর নিয়ে কিছু বলতে অনুরোধ করা হয় শুভেন্দুকে। তখন তিনি বলেন, ‌‘‌আমায় বলছে রামনগর নিয়ে কিছু বলুন। যা বলতে হয় তা করতে নেই। যা করতে হয় তা বলতে নেই। আমার মাথায় আছে আমায় কী করতে হবে। যথা সময়ে সেটা রামনগরের জন্য আমি করব।’‌

এদিন শুভেন্দু তাঁর পরবর্তী বড় কর্মসূচির স্থান–কাল–পাত্র ঘোষণা করেন। তিনি জানান, ‘‌১৯ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার রামনগর আরএস ময়দানে আমার একটি মেগা শো আছে। জেলার বিভিন্ন সমবায় ব্যাঙ্কের প্রতিনিধি, আমানতকারীরা আসবেন সেখানে। সমবায় সপ্তাহ নিয়ে অনুষ্ঠান।’‌ এদিন সকলকে ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানিয়ে শুভন্দু বলেন, ‘‌ওখানে অনেক কথা বলব। অনেক সময় থাকবে হাতে। অনেক কথা বলার সুযোগ পাব।’‌ এদিন অনুষ্ঠানে সকলকে কালীপুজো ও দীপাবলির শুভেচ্ছা জানান শুভেন্দু।

বন্ধ করুন