বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মেদিনীপুরের আরও এক কমিটি থেকে পদচ্যুতি শুভেন্দুর, নয়া সভাপতি হলেন তৃণমূল বিধায়ক
শুভেন্দু অধিকারী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
শুভেন্দু অধিকারী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

মেদিনীপুরের আরও এক কমিটি থেকে পদচ্যুতি শুভেন্দুর, নয়া সভাপতি হলেন তৃণমূল বিধায়ক

  • তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই পূর্ব মেদিনীপুরের একাধিক সমিতি-কমিটি থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে সরাতে উদ্যোগী হয় শাসকদল।

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই পূর্ব মেদিনীপুরের একাধিক সমিতি-কমিটি থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে সরাতে উদ্যোগী হয় শাসকদল। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে সেই প্রয়াশ আরও জোর পায়। সমবায় ব্যাঙ্কের সভাপতে পদ থেকে শুভেন্দুকে সরানোর চেষ্টার ভিত্তিতে মামলা গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। এই আবহে এবার মহিষাদলে প্রজ্ঞানানন্দ স্মৃতিরক্ষা সমিতির সভাপতির পদ ছাড়লেন শুভেন্দু। দীর্ঘ ছয় বছর এই পদে থাকার পর এবার তাঁকে সরতে হল। বদলে নয়া সভাপতি হলেন মহিষাদলের তৃণমূল বিধায়ক তিলক চক্রবর্তী। বৃহস্পতিবার, কমিটির এই সিদ্ধান্তের কথা জানান সহ-সভাপতি শম্ভুনাথ সাউ।

উল্লেখ্য, এর আগে তাম্রলিপ্ত জনকল্যাণ সমিতির সভাপতির পদ থেকেও সরানো হয়েছিল শুভেন্দুকে। এবার তিনি সরলেন প্রজ্ঞানানন্দ স্মৃতিরক্ষা সমিতি থেকে। এদিকে জানা গিয়েছে ব্যস্ততার কারণে নাকি এর আগে নিজে থেকেই পদ ছাড়তে চেয়ে কমিটির কাছে লিখেছিলেন শুভেন্দু। ২০১৯ সাল থেকে নানা ব্যস্ততার কারণে নাকি কমিটির নানা কাজে অনুপস্থিত থেকেছেন শুভেন্দু। তবে মেয়াদ শেষ না হওয়ায় তখন ইচ্ছে থাকলেও সরতে পারেননি শুভেন্দু। শেষ পর্যন্ত তাঁর মেয়াদ শেষ হলে শুভেন্দুর বদলে কমিটির নয়া সভাপতি হিসেবে তৃণমূল বিধায়ককে বেছে নেন কমিটির সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার কমিটির বৈঠক বসেছিল। সেখানে মোট ৪১ জন সদস্যের মধ্যে ২৬ জন উপস্থিতিত ছিলেন। ২৬ সদস্যের সর্বসম্মতিক্রমে কমিটির নতুন সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নেন মহিষাদলের তৃণমূল বিধায়ক। দায়িত্ব পেয়ে তৃণমূল বিধায়কের বক্তব্য, 'মহিষাদলের আবেগের সঙ্গে জড়িয়ে প্রজ্ঞানানন্দ স্মৃতি ভবন। স্বামী প্রজ্ঞানন্দ, স্বাধীনতা সংগ্রামী সতীশ সামন্ত, সুশীল ধারা, সহ একাধিক বীর বিপ্লবীদের স্মৃতিবিজড়িত প্রতিষ্ঠানগুলিকে রক্ষা করার দায়িত্ব আমাকে দেওয়া হয়েছে। এর আগে আমি এই সমিতির কোষাধ্যক্ষের পদ সামলেছি। বর্তমানে সমিতির অন্যান্য সদস্যরা আমাকে সভাপতির দায়িত্ব দিয়েছেন। চেষ্টা করব মহিষাদলের যে সমস্ত পুরানো স্মৃতি বিজড়িত জায়গা রয়েছে সেগুলিকে রক্ষা করার।'

এদিকে কমিটির চেয়ার হাত বদলের নেপথ্যে যে রাজনীতি থাকতে পারে, তা মনে করছেন অনেক বিশ্লেষক। প্রসঙ্গত, প্রজ্ঞানন্দ স্মৃতিরক্ষা কমিটি ছাড়া পূর্ব মেদিনীপুরের একাধিক স্থায়ী কমিটি থেকে সাম্প্রতিক কালে নাম বাদ পড়েছে শুভেন্দুর। বদলে বিভিন্ন তৃণমূল নেতা শুভেন্দুর স্থান নিয়েছেন এসব কমিটিতে।

 

বন্ধ করুন