বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Tapas Roy: ‘কোনও অপরাধ বরদাস্ত করা হবে না’ পুলিশকে আইন মেনে চলার বার্তা তাপসের
তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায়।

Tapas Roy: ‘কোনও অপরাধ বরদাস্ত করা হবে না’ পুলিশকে আইন মেনে চলার বার্তা তাপসের

  • পুলিশের উদ্দেশ্য বলেন, ‘উর্দীধারীরা আইন অনুযায়ী চলবে এবং পদক্ষেপ করবেন। কেউ অপরাধ করলেই সে অপরাধী। সে যে দলেরই হোক, কোনও রেয়াত করা যাবে না আইন অনুযায়ী প্রশাসনকে কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে।’ এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে পুলিশকে তিনি মনে করিয়ে দেন, ‘পুলিশের দোষ যে একেবারে নেই তা নয়।’

শাসক দলের নাম করে কোনও ধরনের অপরাধমূলক কাজ করা যাবে না। আর এই ধরনের কাজ করলে আইন মেনেই ব্যবস্থা নিতে হবে পুলিশকে। এভাবেই পুলিশ এবং তৃণমূল নেতাকর্মীদের কড়া বার্তা দিলেন বরাহনগরের তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায়। তাঁর সাফকথা, কোনও দুষ্কর্ম বরদাস্ত করা হবে না বা কোনও অপরাধকে ধামা চাওয়া দেওয়া যাবে না।

আরও পড়ুন: বউবাজারে মেট্রোর কাজের জন্য ফাটল, বাড়িবদল করতে চান বিধায়ক তাপস রায়

বরাহনগরে একটি অনুষ্ঠানে তাপস রায় পুলিশের উদ্দেশ্য বলেন, ‘উর্দীধারীরা আইন অনুযায়ী চলবে এবং পদক্ষেপ করবেন। কেউ অপরাধ করলেই সে অপরাধী। সে যে দলেরই হোক, কোনও রেয়াত করা যাবে না।আইন অনুযায়ী প্রশাসনকে কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে।’ এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে পুলিশকে তিনি মনে করিয়ে দেন, ‘পুলিশের দোষ যে একেবারে নেই তা নয়। তবে কোনও অপরাধ ধামাচাপা দিলে পুলিশ অফিসারই ট্রান্সফার বা ক্লোজ হয়ে থাকে। তাই আপনারা আইন মেনে কাজ করুন। কারও কথায় চলবে না।’

প্রসঙ্গত, বাগুইআটি কাণ্ডের পর পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঘটনার পরেই বাগুইআটি থানার দুই অফিসারকে সাসপেন্ড করার পাশাপাশি বিধান নগরের পুলিশ কমিশনারকেও বদলি করা হয়। তাপস রায় মনে করেন, ‘পুলিশ খোলা হাতে কাজ করতে দিলে এই ধরনের ঘটনাগুলি ঘটে না।’ একই সঙ্গে তিনি মনে করিয়ে দেন, অপরাধের সঙ্গে যদি কেউ যুক্ত থাকে সে যে দলেরই হোক না কেন তা বরদাস্ত করা হবে না। তিনি বলেন, ‘এই ধরনের কাজ করার অধিকার কেউ তাকে দেয়নি। দল এইসব সমর্থন করে না। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।’ তাপস রায়ের এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘তাপস দা, শোভনদেব বাবুরা ভদ্রলোক। এই ধরনের যে গুটিকয়েক নেতা আছেন তাদের পক্ষে টিএমসি তে টিকে থাকাই মুশকিল হয়ে যাচ্ছে। তাই মনের দুঃখে তারা মাঝেমধ্যে এসব কথা বলে ফেলেন।’

বন্ধ করুন