বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌আগামী দু’মাস সব কর্মসূচি বন্ধ রাখা হোক’‌, ব্যক্তিগত মতপ্রকাশ করলেন অভিষেক
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । ফাইল ছবি।
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । ফাইল ছবি।

‘‌আগামী দু’মাস সব কর্মসূচি বন্ধ রাখা হোক’‌, ব্যক্তিগত মতপ্রকাশ করলেন অভিষেক

  • আজ, শনিবার করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে গঙ্গাসাগর নেলা নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেছিলেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

দেশজুড়ে রক্তচক্ষু দেখাচ্ছে করোনাভাইরাস। তার মধ্যেই পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘন্ট ঘোষণা করছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন। আবার বাংলায় হবে গঙ্গাসাগর মেলা। এই দুইয়ের সঙ্গে সহমত পোষণ করলেন না তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ২২ জানুয়ারি বাংলায় চারটি পুরসভার নির্বাচন রয়েছে। এই সমস্ত বিষয় নিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌আমার ব্যক্তিগত মত, আগামী দু’মাস সব কর্মসূচি বন্ধ রাখা হোক। নির্বাচন পরেও করা যাবে। মানুষ বাঁচলে, আমরা বাঁচব।’‌

একইসঙ্গে তিনি জানান, ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ পর্যন্ত তাঁর সংসদীয় এলাকায় কোনও রাজনৈতিক বা ধর্মীয় সমাবেশ হবে না। আজ, শনিবার করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে গঙ্গাসাগর নেলা নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেছিলেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে সাতজন বিধায়ককে নিয়ে বৈঠক করেন তিনি। তারপরই নিজের সংসদীয় এলাকায় ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত সব কর্মসূচি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

ঠিক কী বলেছেন অভিষেক?‌ এদিন তিনি বলেন, ‘‌আমার ব্যক্তিগত মত, আগামী দু’মাস সব কর্মসূচি বন্ধ রাখা হোক। পুরসভা নির্বাচনের ব্যাপারটা হাইকোর্টে বিচারাধীন। সেটা হাইকোর্ট সিদ্ধান্ত নেবে। এই ব্যাপারে কিছু বলব না। পাঁচ রাজ্যে ভোট আছে। কিন্তু পজিটিভিটি রেট বাড়ছে। মানুষ বাঁচলে, আমরা বাঁচব। রাজনৈতিক লড়াই তো থাকবেই।’‌

তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদের এই কথায় এখন শোরগোল পড়ে গিয়েছে। কারণ গঙ্গাসাগর মেলা সাধারণ মানুষের বলে উল্লেখ করেছিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই মেলার পক্ষে সওয়াল করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে সব বন্ধ রাখার কথা বলায় অনেকেই দ্বিধায় পড়ে গিয়েছেন। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে উত্তরপ্রদেশে, উত্তরাখণ্ড, পাঞ্জাব, মণিপুর এবং গোয়ায় নির্বাচন।

বন্ধ করুন