বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সব হারানো ভাইদের পাশে দাঁড়ালেন সাংসদ দিদি, জমিয়ে দিলেন তাঁদের ভাইফোঁটা
আরামবাগের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অপরূপা পোদ্দার।
আরামবাগের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অপরূপা পোদ্দার।

সব হারানো ভাইদের পাশে দাঁড়ালেন সাংসদ দিদি, জমিয়ে দিলেন তাঁদের ভাইফোঁটা

  • কিন্তু যাঁরা প্রাকৃতিক দুর্যোগে সব হারিয়েছে, তাঁদের কে ভাইফোঁটা দেবে?‌ তাঁরা কী এই আনন্দ থেকে বঞ্চিত থাকবেন?

আজ ভাতৃদ্বিতীয়া। ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা—সেই চিরাচরিত মন্ত্রে আজ সরগরম গোটা রাজ্যে। রাজনীতিবিদ থেকে তারকা অভিনেতা–অভিনেত্রী সবাই মেতে উঠেছে ভাইফোঁটার অনুষ্ঠানে। কিন্তু যাঁরা প্রাকৃতিক দুর্যোগে সব হারিয়েছে, তাঁদের কে ভাইফোঁটা দেবে?‌ তাঁরা কী এই আনন্দ থেকে বঞ্চিত থাকবেন?‌ উঠেছে প্রশ্ন। আর উত্তর হিসাবে দেখা গেল, তাঁদের পাশে দাঁড়ালেন আরামবাগের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অপরূপা পোদ্দার।

কী করলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ?‌ এদিন দেখা গেল, বন্যা দুর্গতদের ভাইফোঁটা দেওয়ার জন্য একটা বড় আয়োজন করা হয় আরামবাগে। আরামবাগ পৌরসভা গোটা আয়োজনের দায়িত্বে ছিল। আর সেখানে সাংসদ অপরুপা পোদ্দার উপস্থিতি হন। আরামবাগ হেলিপ্যাড মাঠে গণ–ভাইফোঁটার আয়োজন করা হয়েছিল। এখানে বড় করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল।

কী হল এখানে ভাইফোঁটায়?‌ শনিবার বারবেলায় বন্যা দুর্গত ভাইদের ফোঁটা দিলেন সাংসদ দিদি অপরূপা পোদ্দার। আর তাতেই আপ্লুত জেলার ভাইরা। তাঁদের মিষ্টি মুখ করিয়ে দেন তিনি। এমনকী রীতিমতো শঙ্খ ধ্বনি ও উলুধ্বনি দিয়ে ভাইফোঁটার অনুষ্ঠান সম্পন্ন করেন সাংসদ। যা দেখতে ভিড় জমে যায়। এই অভিনব ভাইফোঁটার ব্যবস্থা করে তিনি তাক লাগিয়ে দিয়েছেন।

কেন এমনটা করলেন সাংসদ?‌ এই বিষয়ে অপরূপা পোদ্দার বলেন, ‘‌আজকে হিন্দু–মুসলিম–সহ সব ধর্মের মানুষ একত্রিত হয়েছেন এই ভাইফোঁটায়। জাতপাতকে দূরে সরিয়ে রেখে মানুষ এখানে অংশ নিয়েছেন। আর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মানবিক মহিলা। আমাদের দিদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছেন যাতে বন্যাকবলিত এলাকার ভাইরা ভাইফোঁটা থেকে বঞ্চিত না হন। তাই ওনার নির্দেশে আজকে আমরা এই ভাইফোঁটার আয়োজন করেছিলাম।’‌

বন্ধ করুন