বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ব্রিটানিয়া কোম্পানি বাংলা থেকে যাচ্ছে না, বিজেপিকে তুলোধনা করে বড় তথ্য দিলেন সাগরিকা

ব্রিটানিয়া কোম্পানি বাংলা থেকে যাচ্ছে না, বিজেপিকে তুলোধনা করে বড় তথ্য দিলেন সাগরিকা

ব্রিটানিয়া বিস্কুট কোম্পানি

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের পক্ষ থেকে ২০১৯ সালে একটি প্লান্ট গড়ার অনুমতি পায়। এখন সেটার জমি চিহ্নিত হয়েছে দুর্গাপুরে। সেখানেই কারখানা গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গোটা দেশেই ব্রিটানিয়া নিজেদের উৎপাদন ইউনিট ছড়িয়ে দিতে চাইছে। বিস্কুট উৎপাদনের জন্য বাড়তি জায়গা লাগে। বড় জায়গায় কাজ করা হবে।

একদিন আগেই ব্রিটানিয়া বিস্কুট কোম্পানি বাংলা থেকে চলে যাচ্ছে বলে চাউর হয়ে যায়। এই সংস্থার অফিস এবং কারখানা ছিল কলকাতার তারাতলা এলাকায়। সেটি বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে বলে খবর। কিন্তু তার মানে সেটা বাংলা ছেড়ে চলে যাচ্ছে এটা বোঝায় না। বিজেপি নেতারা এই নিয়ে রাজনীতির ময়দানে নেমে পড়েন। এই আবহে একটি সূত্রে প্রাপ্ত খবর, ব্রিটানিয়া সংস্থা আরও বড় আকারে লগ্নি করতে চলেছে দুর্গাপুরে। তবে রেজিস্টার্ড ঠিকানা হিসাবে রাখা হবে তারাতলার ইউনিট। এবার বিজেপি নেতাদের চাউর করা খবরের জবাব দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ সাগরিকা ঘোষ।

ব্রিটানিয়া সংস্থা সূত্রে খবর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের পক্ষ থেকে ২০১৯ সালে একটি প্লান্ট গড়ার অনুমতি পায়। এখন সেটার জমি চিহ্নিত হয়েছে দুর্গাপুরে। সেখানেই কারখানা গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গোটা দেশেই ব্রিটানিয়া নিজেদের উৎপাদন ইউনিট ছড়িয়ে দিতে চাইছে। বিস্কুট উৎপাদনের জন্য বাড়তি জায়গা লাগে। তাই জাতীয় সড়কের ধারে বড় জায়গায় কাজ করা হবে। তারাতলার আগে মুম্বই এবং চেন্নাইয়ের প্লান্টও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। আসলে কোম্পানি এখন চুক্তির ভিত্তিতে অন্যান্য উৎপাদন সংস্থাকে কাজ দিয়ে দিচ্ছে। বাংলাতেও এরকম আছে। ডানকুনিতে বড় কারখানা রয়েছে।

আরও পড়ুন:‌ সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে এসএসকেএমের ফুটপাথ দখলমুক্ত, মমতার কড়া বার্তায় অ্যাকশন

এদিকে এই ঘটনা সামনে না নিয়ে এসে বিজেপির আইটি সেল বাংলা থেকে শিল্প এবং কারখানা চলে গেল বলে চাউর করে দিয়েছে। তাতে আরও বেশি করে আলোড়ন ছড়িয়ে পড়ে। এই অবস্থায় ব্রিটানিয়া সংস্থার একটি সূত্র জানাচ্ছে, ‘‌বাংলায় অনেক বড় মার্কেট রয়েছে। এখানে উৎপাদন করার প্রয়োজন আছে। আর তারাতলার ইউনিটটি সেকেলে। সেটা সাশ্রয়ী নয়। তাই ওটা রেজিস্টার্ড অফিস হিসাবে থাকবে। আর উৎপাদনের জন্য দুর্গাপুরকে বেছে নেওয়া হচ্ছে। বাংলায় এখনও তৃতীয় বৃহত্তম বাজার রয়েছে গোটা দেশের মধ্যে। এই রাজ্য থেকে ৯০০ কোটি টাকা আয় হয়।’‌

অন্যদিকে ২০১৯ সালে রাজ্য সরকার বলেছিল, ব্রিটানিয়া বাংলায় ৩৫০ কোটি টাকা লগ্নি করতে চলেছে। রাজ্য মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেতেই সেই কাজ শুরু হচ্ছে। এই বিষয়ে ব্রিটানিয়া কোম্পানির প্রধান বিনয় সিং কুশওয়া বলেন, ‘‌আমরা রাজ্য সরকারকে লগ্নি প্রস্তাব জমা দিয়েছি। আর তা নিয়ে প্রাথমিক আলোচনাও হয়েছে। এই লগ্নি একাধিক পর্যায়ে এবং একাধিক সামগ্রীর উপর হবে।’‌ এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই এবার বিজেপিকে তেড়ে নিশানা করেন সাগরিকা ঘোষ। তিনি নিজের এক্স হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘‌মাননীয় বিজেপির আইটি সেল এবং অন্যান্য অজৈবিক, আপনাদের বিস্বাদপূর্ণ আনন্দ থামানোর প্রয়োজন নেই। আপনারা দেখুন, ব্রিটানিয়া কিন্তু বাংলায় নিজেদের কারখানা বন্ধ করছে না, যেটা আপনারা দাবি করেছেন। বরং পুরনো কারখানা বন্ধ হওয়ার পরে দুর্গাপুরে বিনিয়োগ করছে। যারা বাংলার দুর্ভাগ্য কামনা করে এবং ভুয়ো খবর ছড়ায় তারা এখন নিজেদেরকে মিথ্যার গর্তে দেখতে পায়।’‌

বাংলার মুখ খবর

Latest News

স্নেহাশিস-অর্পিতার বিয়েতে থাকছেন না সৌরভ! দাদা দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে অখুশি মহারাজ? তিন ফরম্যাটে ভারত অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি রান কাদের? ‘‌এটা বাংলা-দেশের অস্তিত্ব রক্ষার সভা’‌, প্রস্তুতি দেখে ধর্মতলায় বার্তা মমতার বাংলাদেশে মহিলা T20 WC-এর নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন, পরিস্থিতিতে চোখ রাখছে ICC হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে পরিচালক অনিন্দিতা সর্বাধিকারী, হল অস্ত্রোপচার আগামিকাল কেমন কাটবে আপনার? ভাগ্য থাকবে কি পাশে? জানুন ২১ জুলাইয়ের রাশিফল NEET-র প্রশ্নফাঁসের ‘অলরাউন্ডার’, সেই ইঞ্জিনিয়ারকে ধরল CBI, জালে ২ MBBS পড়ুয়াও 'বাংলা ছাড়া যাব কোথায়...' মুম্বইয়ে কাজ নিয়ে যা বললেন টোটা শ্লীলতাহানির অভিযোগ ভুয়ো, অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির রিপোর্ট প্রকাশ করে দাবি রাজভবনের Champions Trophy 2025-এ কোনও হাইব্রিড মডেল হবে না…ভারতকে সতর্ক করলেন মহসিন নাকভি

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.