বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > করোনায় মৃত স্বপন ঘোষের দেহ নিয়ে পানিহাটিতে তৃণমূলের মিছিল
শুক্রবার স্বপনবাবুর দেহ ঘিরে তৃণমূলকর্মীদের ভিড়। 
শুক্রবার স্বপনবাবুর দেহ ঘিরে তৃণমূলকর্মীদের ভিড়। 

করোনায় মৃত স্বপন ঘোষের দেহ নিয়ে পানিহাটিতে তৃণমূলের মিছিল

  • শুক্রবার দুপুরে প্রশাসনের যে গাড়িতে স্বপনবাবুর দেহ সৎকার করতে নিয়ে যাওয়া হয় তাতে বাঁধা ছিল তৃণমূলের পতাকা। স্বপনবাবুর দেহও ঢাকা ছিল তৃমমূলের পতাকায়।

করোনামুক্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে ছুটি পাওয়ার পর দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহকে নিয়ে মিছিল করেছিলেন তৃণমূলকর্মীরা। এবার করোনা সংক্রমণে প্রয়াত পানিহাটির পুর প্রশাসক স্বপন ঘোষের দেহ নিয়ে মিছিল করল তারা। শুক্রবার মৃত্যু হয় স্বপনবাবুর। এর পর তাঁর দেহ নিয়ে পানিহাটিতে বের হয় শেষযাত্রা। সেখানে হাজির হন কয়েকশ’ তৃণমূল সমর্থক। মিছিলে হাজির ছিলেন স্বপনবাবুর দাদা তথা বিধানসভায় তৃণমূলের চিফ হুইপ নির্মল ঘোষও। 

করোনা আক্রান্ত অবস্থায় মৃতের দেহ কী করে প্রশাসনের হাত থেকে তৃমমূলের হাতে এল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। করোনা আক্রান্ত অবস্থায় মৃতের দেহ সৎকারে ICMR-এর প্রোটোকল ভেঙে কী করে নির্মলবাবু মিছিলে সামিল হলেন তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা। 

শুক্রবার দুপুরে প্রশাসনের যে গাড়িতে স্বপনবাবুর দেহ সৎকার করতে নিয়ে যাওয়া হয় তাতে বাঁধা ছিল তৃণমূলের পতাকা। স্বপনবাবুর দেহও ঢাকা ছিল তৃমমূলের পতাকায়। চারিদিকে ছিল লোকে লোকারণ্য। তার মধ্যেই পিপিই পরা স্বাস্থ্যকর্মীরা দেহটি শববাহী গাড়িতে তোলেন। এর পর শুরু হয় মিছিল। 

ওদিকে মিছিল থেকে এলাকায় করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কায় সিঁটিয়ে রয়েছে পাহিহাটিবাসী। বলে রাখি, ইতিমধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন নির্মলবাবু। সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাঁর ছেলেও। 

 

বন্ধ করুন