বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাকি পুরসভা নির্বাচনগুলিতেও জয় চায় তৃণমূল, কর্মীদের জন্য ফরমান জারি
তৃণমূল কংগ্রেস। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
তৃণমূল কংগ্রেস। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

বাকি পুরসভা নির্বাচনগুলিতেও জয় চায় তৃণমূল, কর্মীদের জন্য ফরমান জারি

  • বিরোধীরা যেখানে শক্তিশালী সেখানেই বেশি সময় দিতে হবে বলে ফরমান জারি হয়েছে। এমনই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দলের কর্মীদের।

কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে ভূমিধস সাফল্য এসেছে তৃণমূল কংগ্রেসের। আর নতুন বছরেই দু’‌দফায় রাজ্যের বাকি পুরসভাগুলির নির্বাচন হবে। তাই এখন থেকেই নজর দেওয়া শুরু হচ্ছে জেলায়। লক্ষ্য, সব কটি পুরসভায় জয়। ফলে এখন থেকেই প্রস্তুতি শুরু করছে ঘাসফুল শিবির। এমনকী তার জন্য বেঁধে দেওয়া হয়েছে গাইডলাইন। বিরোধীরা যেখানে শক্তিশালী সেখানেই বেশি সময় দিতে হবে বলে ফরমান জারি হয়েছে। এমনই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দলের কর্মীদের।

প্রতিটি জেলার প্রতিটি ঘরে যেতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাই এখনই জনসংযোগ শুরু করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। দলের শীর্ষস্তর থেকে বলা হয়েছে, এখন থেকেই নিবিড় জনসংযোগ চাই। যেখানে বিধানসভা নির্বাচনে লিড নেই সেখানে জনসংযোগে বেশি সময় দিতে হবে৷ এই প্রচারের জন্য সবকটি শাখা সংগঠনকে একযোগে এগিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

সরকারি প্রকল্প সর্বত্র পৌঁছেছে কিনা তা খোঁজ নিতে বলা হয়েছে। যদি কেউ সরকারি প্রকল্প না পেয়ে থাকে তাহলে সেটা কেন পায়নি দেখতে হবে। যদি কারও বিলম্ব হয়ে থাকে তাহলে দ্রুত তার ব্যবস্থা করে দিতে হবে। সরকারি প্রকল্প প্রত্যেককে জানাতে হবে। বিরোধীরা যে কাজ করেনি, তা প্রচারে নিয়ে আসতে হবে। এমনকী অন্য দলের সমর্থক বা পরিবারের কাছে যেতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বুথ কর্মীদের সক্রিয় হতে বলা হয়েছে।

আরও বলা হয়েছে, নতুন প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের কাছে যেতে হবে বেশি করে। তারা কোনও প্রকল্প না পেয়ে থাকলে তা দেখতে হবে। ফ্লাইং ভোটারদের ফেরাতে হবে। কেন তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট দিতে হবে সেটা বোঝাতে হবে। বিরোধীদের প্ররোচনায় পা না দিয়ে যুক্তি দিয়ে জবাব দিতে হবে। দলের লক্ষ্য শান্তিতে বিপুল ভোটে জয়লাভ।

বন্ধ করুন