বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > থানা ভাঙচুর ও পুলিশকর্মীদের মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

থানা ভাঙচুর ও পুলিশকর্মীদের মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

  • ধৃতদের মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান তাঁরা। কিন্তু পুলিশ আধিকারিকরা সেই দাবি মানেননি। এর পর ধৃতদের থানা থেকে ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা হয়। তখন তৃণমূলকর্মীদের বাধা দেন পুলিশকর্মীরা।

থানা ভাঙচুর ও পুলিশকর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনা রবিবার সকালের। অভিযোগ, সুন্দরবন কোস্টাল থানায় ব্যাপক ভাঙচুর চালায় স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। মারধর করা হয় পুলিশকর্মীদের। ঘটনার পর থেকে থমথমে এলাকা। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরে গোসাবার রাধানগর তারানগর গ্রাম পঞ্চায়েতে বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে এলাকা দখল নিয়ে উত্তেজনা ছিল। শনিবার সেখানে তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত হন বিজেপি কর্মীরা। রাতে আক্রান্তদের তরফে গোসাবায় সুন্দরবন কোস্টাল থানায় অভিযোগ জানানো হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে রাতেই ৪ তৃণমূল কর্মীকে আটক করে পুলিশ। 

অভিযোগ, দলীয় কর্মীদের গ্রেফতারির প্রতিবাদে রবিবার সকালে থানার সামনে প্রথমে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তৃণমূলকর্মীরা। ধৃতদের মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান তাঁরা। কিন্তু পুলিশ আধিকারিকরা সেই দাবি মানেননি। এর পর ধৃতদের থানা থেকে ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা হয়। তখন তৃণমূলকর্মীদের বাধা দেন পুলিশকর্মীরা।

এর পরই থানা লক্ষ্য করে শুরু হয় ইটবৃষ্টি। থানায় ঢুকে তৃণমূলকর্মীরা ভাঙচুর করেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। মারধর করা হয়েছে বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মীকে। 

ঘটনার পর থেকে থমথমে গোটা এলাকা। এলাকায় টহল দিচ্ছে পুলিশ। হামলাকারীদের ধরতে গ্রামে গ্রামে শুরু হয়েছে তল্লাশি।

 

বন্ধ করুন