বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কাটমানি নিতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়লেন তৃণমূলকর্মী, খুঁটিতে বেঁধে চলল গণধোলাই
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

কাটমানি নিতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়লেন তৃণমূলকর্মী, খুঁটিতে বেঁধে চলল গণধোলাই

  • বাদলবাবু শ্যামলীদেবীর ঘর থেকে বেরোতেই তাঁকে ঘিরে ফেলেন স্থানীয়রা। কেন টাকা নিয়েছেন প্রশ্ন করলে সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি। এর পর তাঁকে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে শুরু হয় মারধর।

সরকারি প্রকল্পের ঘর পাইয়ে দেওয়ার নাম করে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগে এক তৃণমূলকর্মীকে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে পেটাল জনতা। শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় বিদায়ী তৃণমূল কাউন্সিলরের অনুগামী ওই ব্যক্তি হাতেনাতে ধরে ফেলেন স্থানীয়রা। এর পর ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে শুরু হয় মার। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছলে পুলিশের হাতে অভিযুক্তকে তুলে দেন তাঁরা। 

ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর – কল্যাণগড় পুরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের বাইগাছি এলাকার। স্থানীয় বাসিন্দা পেশায় দিনমজুর শ্যামলী হালদারের অভিযোগ, সরকারি ঘর পাইয়ে দেওয়ার জন্য তাঁর কাছে ১০,০০০ টাকা দাবি করেন স্থানীয় বিদায়ী কাউন্সিলর সিদ্ধার্থ সরকারের অনুগামী বাদল ব্যাপারী। অনেক কষ্টে সেই টাকা জোগাড় করে শুক্রবার বিকেলে খবর দেন বাদলবাবুকে। বাদলবাবু টাকা নিতে পৌঁছন শ্যামলী দেবীর ঘরে। 

এরই মধ্যে খবর ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। বাদলবাবু শ্যামলীদেবীর ঘর থেকে বেরোতেই তাঁকে ঘিরে ফেলেন স্থানীয়রা। কেন টাকা নিয়েছেন প্রশ্ন করলে সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি। এর পর তাঁকে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে শুরু হয় মারধর। খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছয় অশোকনগর থানার পুলিশ।

বাদল ব্যাপারীকে নিজের অনুগামী বলে স্বীকার করলেও তিনি তাঁকে কোনও টাকা নিতে বলেননি বলে দাবি করেছেন বিদায়ী কাউন্সিলর সিদ্ধার্থবাবু। বাদল ব্যাপারীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এর পর তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন শ্যামলীদেবী।

 

বন্ধ করুন