বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > চায়ের দোকানে তৃণমূল কর্মীকে কোপাল দুষ্কৃতীরা, মুর্শিদাবাদে ধুন্ধুমার কাণ্ড
আহত যুবককে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নিজস্ব চিত্র।
আহত যুবককে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নিজস্ব চিত্র।

চায়ের দোকানে তৃণমূল কর্মীকে কোপাল দুষ্কৃতীরা, মুর্শিদাবাদে ধুন্ধুমার কাণ্ড

  • তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের যুবকর্মী। এখানের চায়ের দোকানে তাঁর উপর হামলা হয়। কে বা কারা কোপালো তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তাঁর ডান হাতে ও পেটে কোপ মারা হয়েছে। এই যুবক এখনও জীবিত আছে। চিকিৎসকদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

সোমবার রাতে চায়ের দোকানে বসেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের যুবকর্মী। তখনই প্রকাশ্যে তাঁকে ছুরি দিয়ে নৃশংসভাবে কোপালো দুষ্কৃতীরা বলে অভিযোগ। মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জ থানার বারালা এলাকার এই ঘটনায় শিউরে উঠেছেন মানুষজন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সরজু শেখ নামে ওই যুবকর্মীকে তড়িঘড়ি জঙ্গিপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঠিক কী ঘটেছে মুর্শিদাবাদে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, সোমবার রাতে সরজু শেখ বারালা এলাকার একটি চায়ের দোকানে বসেছিলেন। তখনই দুষ্কৃতীরা এসে সরজুকে পিছন দিক থেকে ছুরি দিয়ে এলোপাথারি কোপায়। এরপর আশেপাশের মানুষ ছূটে এলে দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায়। ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়।

হামলার প্রকৃত কারণ কী?‌ এই যুবকর্মী সন্ধ্যেবেলা চায়ের দোকানে এসেছিলেন। সেখানেই মানুষের সঙ্গে কথা বলছিলেন। দুষ্কৃতীদের অতর্কিত হানায় গোটা পরিবেশ রক্তাক্ত হয়ে ওঠে। তবে দুষ্কৃতীরা কেন ওই যুবকর্মীকে ছুরি দিয়ে কোপালো? তা এখনও জানা যায়নি। তবে সরজু শেখের বাড়ি রঘুনাথগঞ্জ থানার জরুর এলাকায়। এই ঘটনার তদন্তে নেমেছে রঘুনাথগঞ্জ থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, এই যুবকের নাম সরজু শেখ। তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের যুবকর্মী। এখানের চায়ের দোকানে তাঁর উপর হামলা হয়। কে বা কারা কোপালো তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তাঁর ডান হাতে ও পেটে কোপ মারা হয়েছে। এই যুবক এখনও জীবিত আছে। চিকিৎসকদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। ওই চায়ের দোকানে আসা লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন