বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাম–তৃণমূল ছাত্র সংগঠনের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র রাজপুর, বিধায়কের সামনে হামলার অভিযোগ
এসএফআই–ডিওয়াইএফআই–এর মিছিলে হামলা
এসএফআই–ডিওয়াইএফআই–এর মিছিলে হামলা

বাম–তৃণমূল ছাত্র সংগঠনের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র রাজপুর, বিধায়কের সামনে হামলার অভিযোগ

  • দু’পক্ষের সংঘর্ষে এসএফআইয়ের বেশ কয়েকজনও জখম হয়েছেন বলে খবর। রবিবার দুপুরে এই ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠল রাজপুর এলাকা।

এবার বিধায়কের সামনেই এসএফআই–ডিওয়াইএফআই–এর মিছিলে হামলার অভিযোগ উঠল। অভিযোগের তির তৃণমূল ছাত্র পরিষদের বিরুদ্ধে। তুমুল অশান্তি দেখা গেল রাজপুরে। যদিও সোনারপুর দক্ষিণের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক লাভলী মৈত্রর অভিযোগ, তাঁর গাড়িতে বাম কর্মী–সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরাও আক্রান্ত হয়েছে। দু’পক্ষের সংঘর্ষে এসএফআইয়ের বেশ কয়েকজনও জখম হয়েছেন বলে খবর। রবিবার দুপুরে এই ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠল রাজপুর এলাকা।

আজ শিক্ষক দিবসে স্কুল–কলেজ খোলার দাবি তোলার জন্য পথে নামে বাম ছাত্র ও যুব সংগঠন এসএফআই ও ডিওয়াইএফআই। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অচলাবস্থার বিরুদ্ধেও তাঁরা সোচ্চার হন। রবিবার তাদের মিছিল ছিল সোনারপুর স্টেশন থেকে হরিনাভী মোড় পর্যন্ত। কিন্তু মিছিল রাজপুর রবীন্দ্র ভবনের সামনে আসতেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ। তাতেই রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে এলাকা। এমনকী অভিযোগ, বিধায়ক লাভলী মৈত্রর সামনেই এই অশান্তি শুরু হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে সোনারপুর থানার পুলিশ।

বাম ছাত্র–যুবদের অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়কের সামনেই হামলা চালানো হয়। হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়কের পালটা দাবি, তাঁদের কর্মী–সমর্থকরাই আক্রান্ত হন। এই বিষয়ে সোনারপুর দক্ষিণের বিধায়ক লাভলী মৈত্র বলেন, ‘‌ঝামেলা একটা হয়েছিল। আমরা সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছি। পুলিশ এসে সব মিটিয়ে ফেলে।’‌

তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, তাদের উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালানো হয়েছে। বৈধ অনুমতি না নিয়ে এই মিছিল করা হয়েছিল। পুলিশের দাবি তাদের কোন অনুমতি ছিল না। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। আবার এই ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে ভারতীয় ছাত্র ফেডারেশন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা কমিটি।

বন্ধ করুন