বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দুর্নীতি বন্ধে সীমান্ত এলাকায় ট্রাক টার্মিনাসের দায়িত্ব পরিবহণ দফতরের হাতে

দুর্নীতি বন্ধে সীমান্ত এলাকায় ট্রাক টার্মিনাসের দায়িত্ব পরিবহণ দফতরের হাতে

দুর্নীতি বন্ধে সীমান্ত এলাকায় ট্রাক টার্মিনাসের দায়িত্ব পরিবহণ দফতরের হাতে। প্রতীকী ছবি।

বনগাঁ পৌরসভা এবং কোচবিহার জেলা পরিষদে অবস্থিত ট্রাক টার্মিনাসের পার্কিংলটের দায়িত্ব হাতে নিল রাজ্য পরিবহণ দফতর।

সীমান্ত বাণিজ্য এলাকায় অবস্থিত ট্রাক টার্মিনাসগুলিতে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল দীর্ঘদিন ধরেই। এরফলে ওই সমস্ত টার্মিনাসগুলি থেকে সরকারের রাজস্ব একেবারেই হচ্ছিল না। এই অভিযোগ তুলেছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপরে রাজ্য সরকার এই সমস্ত টার্মিনাসগুলি থেকে রাজ্য সরকার নিজেই রাজস্ব আদায় করবে বলে নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। সেইমত, বনগাঁ পৌরসভা এবং কোচবিহার জেলা পরিষদে অবস্থিত ট্রাক টার্মিনাসের পার্কিংলটের দায়িত্ব হাতে নিল রাজ্য পরিবহণ দফতর। এর ফলে ওই সমস্ত পার্কিংলট থেকে রাজ্য সরকার নিজেই রাজস্ব আদায় করবে।

গত বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সীমান্ত বাণিজ্য এলাকায় অবস্থিত ট্রাক টার্মিনাসের দায়িত্ব রাজ্য সরকার নিজে নেবে বলে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়াম থেকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর এই নির্দেশের কথা উল্লেখ করে তোলাবাজির অভিযোগ তুলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, 'অনেকেই তোলা তুলছে। তার ওপর বিভিন্ন রাজনৈতিক দল রয়েছে। আবার আধিকারিকরাও জড়িত রয়েছে। এরফলে এই সমস্ত টার্মিনাসগুলি থেকে রাজস্ব একেবারে রাজ্য সরকারের হাতে আসছে না।'

উত্তর ২৪ পরগনায় অবস্থিত বনগাঁ পুরসভার অধীনে থাকা কালীতলা পার্কিংলটের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয় পরিবহন দফতরের হাতে। অন্যদিকে, কোচবিহারে অবস্থিত চ্যাংড়াবান্ধা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য কেন্দ্রের দায়িত্বে এতদিন ছিল কোচবিহার জেলা পরিষদের হাতে। সেই দায়িত্ব সোমবার পরিবহন দফতরের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। সীমান্ত বাণিজ্য পরিবহনে দুর্নীতি বন্ধ করতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে প্রশাসনিক সূত্রে জানানো হয়েছে। এরফলে রাজ্য সরকার সরাসরি রাজস্ব আদায় করলে সরকারের আয় বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা।

বন্ধ করুন