বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌পয়সা থাকলেই যা খুশি করা যাবে না’‌, গা-জোয়ারি রুখতে প্রোমোটারকে বললেন TMC বিধায়ক
অসিত মজুমদার{ (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)
অসিত মজুমদার{ (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)

‘‌পয়সা থাকলেই যা খুশি করা যাবে না’‌, গা-জোয়ারি রুখতে প্রোমোটারকে বললেন TMC বিধায়ক

স্থানীয়দের অনুনয়-বিনয় সত্ত্বেও কর্ণপাত করেননি প্রোমোটার। অবশেষে আসরে নামতে হল তৃণমূল বিধায়ককে।

‘‌পয়সা থাকলেই, যা খুশি করা যাবে না’‌। প্রোমোটারের মৌরসিপাট্টার বিরুদ্ধে সরব হলেন তৃণমূল কংগ্রেসে বিধায়ক। নির্মীয়মান আবাসনের সামনে দীর্ঘদিন ধরে ফেলে রাখা হয়েছিল বালি। তাতে অসুবিধার মধ্যে পড়তে হচ্ছিল বাসিন্দাদের। তাঁদের অভিযোগ, প্রোমাটারকে অনুনয়-বিনয়ের সত্ত্বেও কর্ণপাত করেননি তিনি। অবশেষে আসরে নামতে হল তৃণমূল বিধায়ককে। ওই আবাসনের জন্য বাসিন্দাদের অসুবিধার বিষয়টি জানতে পারেন তিনি। তার পরেই প্রোমোটারে মৌরসিপাট্টার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার। একইসঙ্গে সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্যে উদ্যোগীও হন তিনি। অবশ্য এবিষয়ে অভিযুক্ত প্রোমোটারের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

ঘটনাটি ঘটেছে চুঁচুড়ার তোলাফটক এলাকায়।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই এলাকায় একটি আবাসন নির্মাণের জন্য দী‌র্ঘদিন ধরেই সেখানে বালি ফেলে রাখা হয়েছে। ফলে, ওই আবাসন সংলগ্ন বেশ কয়েকটি বাড়ির বাসিন্দাদের অসুবিধার মধ্যে পড়তে হচ্ছিল। তাঁদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে বালি ফেলে রাখার কারণে ওই আশেপাশের বাড়িগুলোর নর্দমা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। ফলে, সামান্য বৃষ্টি পড়লেই বাড়িতে জল জমে যাচ্ছিল। এই নিয়ে দেবাশিস দাস নামের ওই প্রোমোটাকে একাধিকবার বলা হলেও কোনও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

বিষয়টি জানতে পেরে আসরে নামেন চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত। তার পরেই তিনি সমস্যা মেটাতে উদ্যোগী হন। প্রথমে ওই প্রোমোটারকে ফোন করেন তিনি। তবে তাতেও কোনও কাজের কাজ না হওয়ায় বুধবার এলাকায় যান বিধায়ক। তিনি বলেন, ‘মানুষের অসুবিধা করে কোনও কাজ করা যাবে না। পয়সা থাকলেই, যার যেটা খুশি তা করবে, চুঁচুড়ায় এরকম চলবে না।’

বন্ধ করুন