বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ফরাক্কায় গ্রেফতার ২ অ্যাম্বুল্যান্স চালক
মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ, গ্রেফতার ২ অ্যাম্বুল্যান্স চালক (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ, গ্রেফতার ২ অ্যাম্বুল্যান্স চালক (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ফরাক্কায় গ্রেফতার ২ অ্যাম্বুল্যান্স চালক

  • পরিবারের দাবি, বকা খেয়ে দুপুরে মামাবাড়ি থেকে রাগ করে বেরিয়ে যায় কিশোরী।

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে পরিত্যক্ত ঘরে 'ধর্ষণ' করা হল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে। ‌দুই অ্যাম্বুল্যান্স চালকের বিরুদ্ধে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে ফরাক্কা থানার পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে এই ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের ফরাক্কা থানার অন্তর্গত টাউনশিপ এলাকায়। 

পেশায় দু’‌জনেই অ্যাম্বুল্যান্স চালক। পুলিশ ওই কিশোরীকে পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠায়। কিশোরীর শারীরিক পরীক্ষা করা হয় জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে। ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

ধৃতদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, দু’‌জনে ওই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। মেয়েকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয় পরিবার। পুলিশও দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুঁজি করে। অবশেষে এলাকার ওই পরিত্যক্ত ঘর থেকে অবিন্যস্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় ওই কিশোরীকে। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত দু’‌জন অ্যাম্বুলেন্স চালককে গ্রেফতার করেছে ফরাক্কা থানার পুলিশ ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মালদার ষোলো মাইল থানার চকসুদাপুরের বাসিন্দা ওই কিশোরী গত ২৫ দিন আগে ফরাক্কায় মামার বাড়ি বেড়াতে আসে। লকডাউনের জন্য গাড়ি বন্ধ থাকায় বাড়ি ফিরতে পারেনি সে। শুক্রবার কিশোরীর মা তাকে নিয়ে যেতে এলে, বাড়ি যেতে আপত্তি করে সে। এই নিয়ে মায়ের সঙ্গে বচসা হয় ওই কিশোরীর। বকা খেয়ে দুপুরে মামাবাড়ি থেকে রাগ করে বেরিয়ে যায় কিশোরী। দুপুরের পর থেকে আর ওই কিশোরীকে কোথাও খুঁজে পায়নি তার বাড়ির লোকজন৷ তবে কোথাও তাঁদের মেয়ের সন্ধান না পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন নির্যাতিতা কিশোরীর পরিবার।

বন্ধ করুন