বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মণীশ–খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ২, ধৃত খুররম খানের বাবাকে খুনে নাম জড়িয়েছিল মণীশের
টিটাগড়ে পুলিশি টহল। ইনসেটে, মণীশ শুক্ল। ফাইল ছবি
টিটাগড়ে পুলিশি টহল। ইনসেটে, মণীশ শুক্ল। ফাইল ছবি

মণীশ–খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ২, ধৃত খুররম খানের বাবাকে খুনে নাম জড়িয়েছিল মণীশের

  • সিআইডি জানতে পেরেছে, ১ মাস ধরে মণীশকে খুনের ছক কষছিল খুররম ও গুলাব। রবিবারই খুনের পরিকল্পনা করে তারা।

টিটাগড় পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর ও বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল খুনের ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করল সিআইডি। সোমবার রাতেই বেশ কয়েকজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে সিআইডি। সঙ্গে ছিল ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের আধিকারিকরাও। তার মধ্যে মহম্মদ খুররম খান ও গুলাব শেখ নামে দু’‌জনের বয়ানে বেশ কিছু অসঙ্গতি পাওয়া যায়। এর পরই মঙ্গলবার সকালে তাদের গ্রেফতার করে সিআইডি।

গ্রেফতারির পর থেকে দু’‌জনকেই টানা জেরা করছেন সিআইডি–র আধিকারিক। উঠে এসেছে কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুরনো শত্রুতার জেরেই এই খুন বলে দাবি করেছে সিআইডি। প্রাথমিক তদন্তে সিআইডি জানতে পেরেছে, ১ মাস ধরে মণীশের ওপর নজরদারি করে খুররম ও গুলাব। রবিবার তিনি অসুরক্ষিত থাকায় তাঁকে খুনের পরিকল্পনা করে তারা। এদিকে, ধৃত গুলাবের বিরুদ্ধে থানায় বেশ কিছু তোলাবাজির ঘটনার অভিযোগ দায়ের করা রয়েছে।

অন্যদিকে, ধৃত মহম্মদ খুররম খানে ভাই ইনাম শেখের দাবি, রবিবার অর্থাৎ ঘটনার দিন দুপুরের পর থেকে সারাদিন বাড়িতেই ছিল তাঁর দাদা। সিআইডি–র তদন্তে উঠে এসেছে পুরনো শত্রুতার জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। সেই ইঙ্গিত পাওয়া গেল খুররমের ভাই ইনাম শেখের কাছ থেকেও। তিনি জানান, বেশ কয়েক বছর আগে তাঁদের বাবা মহম্মদ ইসলামকে গুলি করে খুন করা হয়। আর সেই ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত ছিলেন মণীশ শুক্ল। সেই বদলা নিতেই এই খুন কিনা তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

ইনাম আরও জানান, কাপড় ও মাছের বাজারে ব্যবসার পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করে তাঁর দাদা মহম্মদ খুররম খান। ৫–৬ বছর ধরে সে তৃণমূলের সঙ্গেও যুক্ত। ধৃত গুলাব শেখও বরাবরই খুররমের সঙ্গে থাকত বলে জানিয়েছেন ইনাম।

বন্ধ করুন