বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দুই তৃণমূল নেতা–নেত্রীর মারামারি প্রকাশ্যে, রাজনীতিতে পরকীয়া নিয়ে অভিযোগ
তৃণমূল কংগ্রেসের দুই নেতা–নেত্রীর মধ্যে মারামারি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
তৃণমূল কংগ্রেসের দুই নেতা–নেত্রীর মধ্যে মারামারি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

দুই তৃণমূল নেতা–নেত্রীর মারামারি প্রকাশ্যে, রাজনীতিতে পরকীয়া নিয়ে অভিযোগ

  • এখন তা চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে। অভিযোগ, এই ঘটনার জেরে একজনের পোশাক আর একজন ছিঁড়ে দিয়েছে।

এবার রাজনীতিতে ঢুকে পড়ল পরকীয়া। আর তার জেরে মারামারি পর্যন্ত ঘটল। তৃণমূল কংগ্রেসের দুই নেতা–নেত্রীর মধ্যে মারামারির বিষয় পরকীয়ার কারণে তা ভাবতে পারছেন না স্থানীয় মানুষজন। প্রকাশ্যে এই ঘটনা ঘটল জগদ্দলের কাউগাছি–১ পঞ্চায়েত এলাকায়। এখন তা চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে। অভিযোগ, এই ঘটনার জেরে একজনের পোশাক আর একজন ছিঁড়ে দিয়েছে।

পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে, পুলিশকে হস্তক্ষেপ করতে হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, এই পঞ্চায়েতের চণ্ডীতলা চারাবাগানে থাকেন তাপসী মাইতি এবং গজেন বিশ্বাস। তাপসী কাউগাছি-১ পঞ্চায়েতের ৫৩ নম্বর সংসদের সদস্যা। আর গজেন এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বলেই পরিচিত। এই দুই নেতা–নেত্রীর মারামারির ঘটনা এখন চায়ের দোকানের চর্চা বিষয় হয়ে উঠেছে।

ঠিক কী ঘটেছে?‌ তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্যা তাপসীর প্রতিবেশীরা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় তাপসীর বাড়িতে এক যুবক এসেছিলেন। তখন ওখান দিয়ে যাচ্ছিলেন গজেন। জানালা দিয়ে উঁকিও মারেন গজেন। তারপর তিনি অভিযোগ করেন, বাড়িতে আসা ওই যুবকের সঙ্গে তাপসীর পরকীয়ার সম্পর্ক আছে। এই নিয়ে গজেন চেঁচামেচি জুড়ে দেন। তখন তাপসী তাঁর সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন। সেই বচসাই পৌঁছে যায় হাতাহাতিতে। যা দেখতে পান স্থানীয় মানুষজন।

এই বিষয়ে তাপসী মাইতি বলেন, ‘আমরা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে কথা বলছিলাম। গজেন এসে অশ্লীল ইঙ্গিত দেয়। তারই প্রতিবাদ করেছি। তখনই ওঁর পরিবারের লোকজন আমাকে মারধর করেছে।’ পাল্টা গজেনের স্ত্রী বিউটি বলেন, ‘তাপসী এবং এক যুবক মিলে আমার স্বামীকে মারধর করেছে। তা শুনে আমরা থামাতে গিয়েছিলাম। আমাদেরও ওরা মেরেছে।’

বন্ধ করুন