বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সিবিআই জিজ্ঞাসাবাদের মুখে দুই তৃণমূল বিধায়ক, ভোট পরবর্তী হিংসার জের
অনুব্রত মণ্ডলের ঘনিষ্ঠ বিধায়করা সিবিআইয়ের মুখোমুখি হলেন।

সিবিআই জিজ্ঞাসাবাদের মুখে দুই তৃণমূল বিধায়ক, ভোট পরবর্তী হিংসার জের

  • ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে জেরা করা হয়েছে। সেখানে তাঁর দেওয়া তথ্যের সঙ্গে বিধায়কদের বক্তব্য মিলিয়ে দেখা হচ্ছে। যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের দুই বিধায়ক কোন বিষয়ে সিবিআই তলব তা খোলসা করেননি।

অনুব্রত মণ্ডলকে বারবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে ‘ভোট-পরবর্তী হিংসা’ মামলায়। এবার অনুব্রত মণ্ডলের ঘনিষ্ঠ বিধায়করা সিবিআইয়ের মুখোমুখি হলেন। এখান থেকেই সিবিআই তথ্য বের করতে আনতে চেষ্টা করছেন বলে সূত্রের খবর। এই দুই বিধায়ক হলেন— লাভপুরের বিধায়ক অভিজিত্‍ সিং এবং কেতুগ্রামের বিধায়ক শেখ শাহনওয়াজ।

ঠিক কী বিষয় সামনে এসেছে?‌ একুশের নির্বাচনের পরে বিরোধীদের উপর হিংসা নামিয়ে আনা হয়েছিল বলে অভিযোগ। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা হলে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। এই ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় অভিযোগ ওঠে অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে। তাই তাঁকে সিবিআই জেরা করেছে। আজ, শনিবার দুর্গাপুরের এনআইটি–তে সিবিআইয়ের অস্থায়ী শিবিরে তলব করা হয়েছিল দুই বিধায়ককে। সেখানে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।

ঠিক কী জানা যাচ্ছে?‌ সিবিআই সূত্রে খবর, ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে জেরা করা হয়েছে। সেখানে তাঁর দেওয়া তথ্যের সঙ্গে বিধায়কদের বক্তব্য মিলিয়ে দেখা হচ্ছে। যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের দুই বিধায়ক কোন বিষয়ে সিবিআই তলব তা খোলসা করেননি। ইতিমধ্যেই বিজেপি কর্মী গৌরব সরকারের খুনে তৃণমূল বিধায়ক পরেশ পালকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গরু পাচারের পাশাপাশি ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তাঁকে সাড়ে ৫ ঘণ্টার ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। আগেও দুর্গাপুরের এনআইটি’‌র ক্যাম্পাসে বীরভূম এবং বর্ধমানের প্রায় আটজন বিধায়ক ও ব্লক সভাপতিকে তলব করেছিল সিবিআই।

বন্ধ করুন