বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Katwa: সয়ম্ভর গোষ্ঠীর নামে মহিলাদের সঙ্গে প্রতারণা, দুই অভিযুক্তকে ঘরবন্দি করলেন গ্রামবাসীরা
সয়ম্ভর গোষ্ঠীর নামে প্রতারণা। প্রতীকী ছবি

Katwa: সয়ম্ভর গোষ্ঠীর নামে মহিলাদের সঙ্গে প্রতারণা, দুই অভিযুক্তকে ঘরবন্দি করলেন গ্রামবাসীরা

অভিযোগ, রাজ্য সরকারের আনন্দধারা প্রকল্পকে হাতিয়ার করে এই দুজন কয়েকশো মহিলার সঙ্গে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছেন। সয়ম্ভর গোষ্ঠীর অন্যান্য মহিলা সদস্যদের অজান্তে ব্যাঙ্কের কাছ থেকে তারা লক্ষ লক্ষ টাকা ঋণ তুলেছেন বলে অভিযোগ। 

সয়ম্ভর গোষ্ঠীর নামে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ, উঠল দুই তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে। অভিযোগ সয়ম্ভর গোষ্ঠীর নাম করে তারা ব্যাঙ্ক থেকে লক্ষ লক্ষ টাকার ঋণ তুলে আত্মসাৎ করেছেন। এই অভিযোগে দীর্ঘক্ষণ ধরে ওই ২ তৃণমূল কর্মী তথা সয়ম্ভর গোষ্ঠীর নেত্রীকে আটকে রাখলেন স্থানীয়রা। তাদের কাছ থেকে মুচলেখা লিখিয়ে নেন স্থানীয়রা। এরপর পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে। তাদের বিরুদ্ধে কয়েকশো মহিলার সঙ্গে প্রতারণাএ অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত ২ তৃণমূল কর্মীর নাম বকুল চক্রবর্তী এবং চুমকি সাহা। ঘটনাটি পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ার আলমপুর পঞ্চায়েতের।

অভিযোগ, রাজ্য সরকারের আনন্দধারা প্রকল্পকে হাতিয়ার করে এই দুজন কয়েকশো মহিলার সঙ্গে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছেন। সয়ম্ভর গোষ্ঠীর অন্যান্য মহিলা সদস্যদের অজান্তে ব্যাঙ্কের কাছ থেকে তারা লক্ষ লক্ষ টাকা ঋণ তুলেছেন বলে অভিযোগ। আর এই ঋণের সঙ্গে ব্যাঙ্কের কর্মী এবং করে ব্লক প্রশাসনের বহু কর্মী জড়িত রয়েছে বলে অভিযুক্ত দুই মহিলা স্বীকার করে নিয়েছেন। জানা গিয়েছে, প্রথমে অভিযুক্তদের এলাকায় ডাকা হয়। এরপরে তাদের ঘরবন্দি করে রেখে দেন গ্রামবাসীরা। তাদের অভিযোগ, তাদের না জানিয়েই ঋণ নেওয়া হয়েছে। এখন ব্যাঙ্কের তরফ থেকে তাদের ঋণ মেটানোর চাপ দেওয়া হচ্ছে। এমনকি এতদিন ধরে জমানো টাকাও ঋণের কিস্তি হিসাবে কেটে নেওয়া হচ্ছে। সবমিলিয়ে ৪০ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা প্রতারণা করা হয়েছে বলে অভিযোগ। অভিযুক্তরা প্রতারণার কথা স্বীকার করে নেওয়ার পরে তাদের দিয়ে মুচলেখা লিখিয়ে নেন গ্রামবাসীরা।

অন্যদিকে, দুই অভিযুক্ত নিজেদের তৃণমূল কর্মী বলে দাবি করলেও তা অস্বীকার করেছেন স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তপন কুমার মণ্ডল। তিনি জানান, বকুল বা চুমকি কেউই তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত নন। তৃণমূলের নাম খারাপ করার জন্য চক্রান্ত করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন