বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ধর্ষিতাকে দেখতে গিয়ে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজকে ‘‌আবর্জনার স্তূপ’‌ বললেন মন্ত্রী
উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিংহ পটেল। ছবি সৌজন্য :‌ টুইটার
উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিংহ পটেল। ছবি সৌজন্য :‌ টুইটার

ধর্ষিতাকে দেখতে গিয়ে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজকে ‘‌আবর্জনার স্তূপ’‌ বললেন মন্ত্রী

  • বিজেপি–র অভিযোগ, ওই আদিবাসী নাবালিকাকে ধর্ষণে জড়িত রয়েছে এক তৃণমূলকর্মী। পর্যটনমন্ত্রকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রথমদিকে পুলিশ অভিযোগ নিতে চায়নি, পরে বিজেপি–র যুব মোর্চার চাপে পুলিশ মামলা করে এবং অভিযুক্তকে জেলে পাঠিয়েছে।

শুক্রবার একদিনের সফরে শিলিগুড়ি এসেছিলেন কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিংহ পটেল। ধর্ষণের শিকার ১০ বছর বয়সী এক আদিবাসী বালিকাকে দেখতে তিনি গিয়েছিলেন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। সঙ্গে ছিলেন দার্জিলিংয়ের বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা। আর তার পরই রাজ্য প্রশাসনের দিকে আঙুল তুলে ও সরকারি হাসপাতালের অবস্থার কথা তুলে ধরে টুইট করেন তিনি। টুইটে তিনি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালকে ‘‌আবর্জনার স্তূপ’‌ হিসেবে কটাক্ষ করেন।

পর্যটনমন্ত্রকের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, প্রহ্লাদ সিংহ পটেল হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছ থেকে ওই নির্যাতিতা নাবালিকার শারীরিক অবস্থার বিষয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন। এবং তার পাশাপাশি ওই নাবালিকার চিকিৎসা কীভাবে হচ্ছে তাও তিনি জানতে চান চিকিৎসকদের কাছে।

এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিংহ পটেল টুইট করে লিখেছেন, ‘‌শিলিগুড়ির মেডিক্যাল কলেজে সাংসদ রাজু বিস্তার সঙ্গে গিয়ে ওই নাবালিক নির্যাতিতা তথা আদিবাসী সম্প্রদায়ের কন্যার সঙ্গে দেখা করেছি। বাংলার সরকার ও তৃণমূলের বিভৎস চেহারা দেখতে পেলাম। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেখানে নিজেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী তখন রাজ্যেরই এক মেডিক্যাল কলেজের অবস্থা যেন আবর্জনার স্তূপ।’‌

এদিকে, বিজেপি–র অভিযোগ, ওই আদিবাসী নাবালিকাকে ধর্ষণে জড়িত রয়েছে এক তৃণমূলকর্মী। পর্যটনমন্ত্রকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রথমদিকে পুলিশ অভিযোগ নিতে চায়নি, পরে বিজেপি–র যুব মোর্চার চাপে পুলিশ মামলা করে এবং অভিযুক্তকে জেলে পাঠিয়েছে। এই ঘটনায় যে যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে তিনি তৃণমূলের এক ব্লক সভাপতি বলে জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন