বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > উচ্চ প্রাথমিক: ২১১০ জনের অভিযোগ দেখবে SSC, ১০ অগস্ট থেকে শুনানি, দেখুন তালিকা
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হরসিমর পাল সিং/হিন্দুস্তান টাইমস
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হরসিমর পাল সিং/হিন্দুস্তান টাইমস

উচ্চ প্রাথমিক: ২১১০ জনের অভিযোগ দেখবে SSC, ১০ অগস্ট থেকে শুনানি, দেখুন তালিকা

  • গত বুধবার সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে ইন্টারভইউ প্রক্রিয়া। তবে হাই কোর্টের নিষেধাজ্ঞার জেরে এখনই নিয়োগপত্র দিতে পারবে না এসএসসি।

গত বুধবার সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে ইন্টারভইউ প্রক্রিয়া। তবে হাই কোর্টের নিষেধাজ্ঞার জেরে এখনই নিয়োগপত্র দিতে পারবে না এসএসসি। এদিকে শুক্রবারই তালিকা প্রকাশ করে এসএসসি জানাল যে নিয়োগ সংক্রান্ত কোন অভিযোগগুলি খতিয়ে দেখে নিষ্পত্তি করা হবে। এসএসসি-র তরফে জানানো হয়েছে মোট ২১১০ টি নাম বেছে নেওয়া হয়েছে। তাঁদের অভিযোগের নিষ্পত্তি করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

১০ অগস্ট থেকে কমিশনের দফতরে এই অভিযোগগুলির প্রেক্ষিতে শুাননি হবে বলে জানানো হয়েছে। প্রতিদিন দুই দফায় এই শানুনিগুলি অনুষ্ঠিত হবে। সকাল সাড়ে ১০ টা, এবং দুপুর দেড়টায় আসতে বলা হয়েছে আবেদনকারীদের। ১০-১৩ অগস্টের মধ্যে ১২৭০ জনের অভিযোগের শুনানি হবে। এরপর ১৬ এবং ১৭ অগস্ট শুনানি হবে বাকি আবেদনকারীদের। নিচে পুরো তালিকা রইল :

উল্লেখ্য, উচ্চ প্রাথমিকে প্রায় ২০ হাজারের কাছাকাছি শূন্য পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয় ২০১৬ সালে। সেই প্রক্রিয়াতে একাধিক অস্বচ্ছতা রয়েছে মনে করে ২০২০ সালের ১১ ডিসেম্বর নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করে তা নতুন করে করার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। বিচারপতি তাঁর নির্দেশে জানিয়েছিলেন, ২০২১ সালের ৪ জানুয়ারি থেকে নতুন করে প্রার্থীদের নথিপত্র যাচাই করে ১০ মে-র মধ্যে ইন্টারভিউর তালিকা প্রকাশ করতে হবে। এর আট সপ্তাহের মধ্যে মেধাতালিকা এবং ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে পুরো নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি। এর পর গত ২১ জুন স্কুল সার্ভিস কমিশন ১৪ হাজার ৩৩৯টি পদে নিয়োগের জন্য ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ করে।

যদিও সেই তালিকাতেও একাধিক গলদের অভিযোগে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় নিয়োগ প্রক্রিয়ার ওপর স্থগিতাদেশ জারি করেছিলেন। যদিও পরে তিনি সেই স্থগিতাদেশ তুলে নেন। কিন্তু কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ গত ২০ জুলাই একটি নির্দেশে জানায়, হাইকোর্টের অনুমতি ছাড়া আপাতত নিয়োগ করতে পারবে না স্কুল সার্ভিস কমিশন।

বন্ধ করুন