বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সাসপেনশনের মেয়াদ বাড়ল বিশ্বভারতীর অধ্যাপকের আবারও বিতর্কের মুখে উপাচার্য,
বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। ফাইল ছবি
বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। ফাইল ছবি

সাসপেনশনের মেয়াদ বাড়ল বিশ্বভারতীর অধ্যাপকের আবারও বিতর্কের মুখে উপাচার্য,

ওই অধ্যাপক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা বোধিরূপা সিংয়ের নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। অধ্যাপিকাকে নিয়োগের পদ্ধতিতে ত্রুটি রয়েছে, এই অভিযোগ তুলে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যপাল ও উপাচার্যকে চিঠি দিয়েছিলেন তিনি।

ফের বিতর্কের মুখে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। এবার অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের সাসপেনশনের মেয়াদ আরও এক মাস বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি এই বিষয়ে অধ্যাপককে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি তিন পড়ুয়ার বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের উপর স্থগিতাদেশ জারি করেছে আদালত।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর, গত জানুয়ারিতে অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যকে সাসপেন্ড করে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। সেপ্টেম্বরে সেই সাসপেনশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত শনিবার বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ সাসপেনশনের মেয়াদ বাড়ানোর কথা জানিয়ে দেয়। উল্লেখ্য, পাঠভবনের অধ্যাপিকা নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ্যে আনায় অর্থনীতির এই অধ্যাপককে সাসপেন্ড করে বিশ্বভারতী। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, ওই অধ্যাপক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা বোধিরূপা সিংয়ের নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। অধ্যাপিকাকে নিয়োগের পদ্ধতিতে ত্রুটি রয়েছে, এই অভিযোগ তুলে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যপাল ও উপাচার্যকে চিঠি দিয়েছিলেন তিনি। এই পদক্ষেপের পরই বিশ্বভারতীর ওই অধ্যাপককে সাসপেন্ড করা হয়। সাসপেনশনের কারণ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে জানানো হয়, অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার আগেই পুরো ঘটনাটি সামনে এনেছেন অধ্যাপক। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন পড়ুয়াকে বহিষ্কারের পর উত্তাল হয়ে উঠেছিল বিশ্বভারতী। সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্ট তিন পড়ুয়ার বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের উপর স্থগিতাদেশ জারি করেছে। পড়ুয়াদের লঘু পাপে গুরু দণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে আদালতের পর্যবেক্ষণ ছিল।

বন্ধ করুন