পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশবাহিনী।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশবাহিনী।

করোনা ত্রাণের টাকা সরানোর অভিযোগে বারাসতে ২ তৃণমূল নেতাকে মারধর, বিক্ষোভ

  • অভিযোগ, ব্লক স্তর থেকে সংগৃহীত করোনা ত্রাণের অর্থ থেকে দুর্গতদের জন্য খাদ্যশস্য ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার পরে বাকি অর্থ আত্মস্যাৎ করে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতারা।

করোনা দুর্গতদের ত্রাণের জন্য সংগৃহীত অর্থ তছরুপের অভিযোগে শনিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারাসত দুই নম্বর ব্লকে বেধড়ক মারধর করা হল শাসকদলের দুই নেতাকে।

স্থানীয় অধিবাসীদের অভিযোগ, করোনা সংক্রমণের জেরে আরোপ করা লকডাউনের কারণে রোজগার হারানো মানুষকে সাহায্যের কথা বলে কয়েক লাখ টাকা চাঁদা তোলা হয়। টাকা জোগাড় করতে শাসন গ্রাম পঞ্চায়েতের বেশ কয়েকটি অঞ্চল থেকে ইটভাটা, ভেড়ি ও কারখানা মালিকদের থেকে অর্থ সংগ্রহ করা হয় বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় মজলিশপুর গ্রামের বাসিন্দাদের অভিযোগ, ব্লক স্তর থেকে সংগৃহীত করোনা ত্রাণের অর্থ থেকে দুর্গতদের জন্য খাদ্যশস্য ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার পরে বাকি অর্থ আত্মস্যাৎ করে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতারা। স্থানীয়দের অভিযোগ, ত্রাণ তহবিল থেকে প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকা সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

এ দিন সকালে ত্রাণ তহবিলের অর্থ সরানোর অভিযোগে ওই দুই তৃণমূল নেতাকে মারধর করা লহয় বলে জানা গিয়েছে। শুধু তাই নয়, ঘটনাকে কেন্দ্র করে একাধিক অঞ্চলে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশবাহিনী। কিন্তু এরপর পুলিশের বিরুদ্ধে শুরু হয় বিক্ষোভ।

শেষ পর্যন্ত অভিযুক্তদের গ্রেফতারের প্রতিশ্রুতি পাওয়ার পরে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এর পর দুই জখম তৃণমূল নেতাকে উদ্ধার করে পুলিশ।



বন্ধ করুন