বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কেন দুয়ারে পৌঁছাচ্ছে না রেশন? ডিলারকে ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের
তুমুল বিক্ষোভ রেশন দোকানের সামনে। ছবিটি প্রতীকী। (নিজস্ব চিত্র )

কেন দুয়ারে পৌঁছাচ্ছে না রেশন? ডিলারকে ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের

  • গত ১৬ নভেম্বর নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

গত ১৬ নভেম্বর নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই প্রকল্প চালু হওয়ার পর থেকেই রাজ্যজুড়ে একাধিক অভিযোগ উঠে আসছে। ঠিকমতো রেশন না দেওয়া থেকে শুরু করে নির্দিষ্ট পরিমাণের তুলনায় কম রেশন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিভিন্ন জায়গা থেকে। বহু জায়গাতেই এখনও দুয়ারে রেশন প্রকল্প চালু হয়নি বলে অভিযোগ। তেমনই অভিযোগ তুললেন হুগলির পান্ডুয়া এলাকার চৌবেড়া গ্রামের বাসিন্দারা। রেশন নিতে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা ডিলারকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্প দুয়ারে রেশন আশেপাশে গ্রামগুলোতে চালু হয়ে গিয়েছে। ফলে ওই সমস্ত গ্রামের বাসিন্দাদের রেশনের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় না। কিন্তু, চৌবেড়া গ্রামের ডিলার প্রভাত কর একদিনও দুয়ারে রেশন পৌঁছে দেননি বলে অভিযোগ।

এলাকাবাসীদের আরও অভিযোগ, একেই রেশনের জন্য তাঁদের কয়েক কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে ডিলারের কাছে যেতে হয়। তারপরে কোনও যান্ত্রিক সমস্যা থাকলে সেক্ষেত্রে রেশন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন গ্রাহকরা। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, দুয়ারে রেশন চালু করা নিয়ে ডিলার প্রভাত করের কাছে একাধিকবার অনুরোধ করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও তিনি দুয়ারে রেশন দিচ্ছেন না বলে অভিযোগ। তা নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকাবাসীরা। শেষমেশ তাঁরা ডিলারকে ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

অন্যদিকে, বাঁকুড়া জেলার ডিলারদের সংগঠন এম আর ডিলার অ্যাসোসিয়েশন দুয়ারে রেশন প্রকল্প বন্ধ করে দিতে চাইছে। ইতিমধ্যেই তারা এ নিয়ে খাদ্য দফতরের কাছে আবেদনও জানিয়েছেন। যদিও তাদের আবেদনে সম্মতি দেননি খাদ্য দফতর।

বন্ধ করুন