বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ফের শুরু হল পৌষ মেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়ার কাজ, নিরাপত্তার দায়িত্বে পুলিশ
পৌষ মেলার মাঠের পাশে রাখা হয়েছে নির্মাণসামগ্রী
পৌষ মেলার মাঠের পাশে রাখা হয়েছে নির্মাণসামগ্রী

ফের শুরু হল পৌষ মেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়ার কাজ, নিরাপত্তার দায়িত্বে পুলিশ

  • বিশ্বভারতীর তরফে জানানো হয়েছে, মেলার মাঠ ঘেরার জন্য ৬০ লক্ষ টাকা খরচ ধরা হয়েছে। গোটা মাঠে থাকবে ৮টি গেট। মেলার মাঠের নিরাপত্তার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে স্থানীয় প্রশাসনকে।

আদালতগঠিত কমিটির তত্ত্বাবধানে ফের শুরু হল শান্তিনিকেতনের পৌষ মেলার মাঠ ঘেরার কাজ। সোমবার সকালে মেলার মাঠ পাঁচিল দিয়ে ঘেরার কাজ শুরু করেছেন ঠিকাদার সংস্থার কর্মীরা। জানা গিয়েছে, আড়াই ফুট উঁচু পাঁচিলের ওপরে পাঁচ ফুট উঁচু তারকাটার বেড়া দেওয়া হবে। গোটা কাজ শেষ হতে সময় লাগবে প্রায় ৪ সপ্তাহ। 

রবিবার দ্বিতীয়বারের জন্য শান্তিনিকেতন সফরে যান কলকাতা হাইকোর্টের গঠন করা চার সদস্যের কমিটির সদস্যরা। সেখানে তাঁরা ছাত্র, আশ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকের পর পর কমিটির তরফে জানানো হয়, মেলার মাঠ ঘেরার কাজ তাড়াতাড়ি শুরু হবে। সোমবার থেকে শুরু হল সেই কাজ। 

বিশ্বভারতীর তরফে জানানো হয়েছে, মেলার মাঠ ঘেরার জন্য ৬০ লক্ষ টাকা খরচ ধরা হয়েছে। গোটা মাঠে থাকবে ৮টি গেট। মেলার মাঠের নিরাপত্তার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে স্থানীয় প্রশাসনকে। সেই দায়িত্ব পালনে ইতিমধ্যে মাঠের চারিদিকে ৪০টি সিসিটিভি ক্যামেরা লাগিয়েছে পুলিশ। 

সূত্রের খবর, পাঁচিল দেওয়ার কাজের অগ্রগতি দেখতে কয়েকসপ্তাহ পর ফের শান্তিনিকেতনে যাবেন চার সদস্যের কমিটির সদস্যরা। 

বলে রাখি, গত ১৭ অগাস্ট পৌষমেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়ার কাজ চলাকালীন স্থানীয় তৃণমূলি বিধায়কের নেতৃত্বে হামলা চালায় কয়েকশ’ মানুষ। ভাঙচুরের পাশাপাশি লুঠ হয় নির্মাণসামগ্রী। গ্রিন ট্রাইব্যুনালের নির্দেশে মেলার মাঠ ঘেরার কাজ চালাচ্ছিল বিশ্বভারতী। তৃণমূলের অভিযোগ, পাঁচিল দিয়ে মাঠ ঘেরা রাবেন্দ্রিক ঐতিহ্য বিরোধী। পালটা বিজেপির দাবি, মেলার মাঠ দখল করে প্রোমোটারি করার লক্ষ্যে পাঁচিল দেওয়ার বিরোধিতা করছে তৃণমূল।

 

বন্ধ করুন