বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দেওয়াল চাপা পড়ে একই পরিবারের ৩ জনের মৃত্যু, দেহ ময়নাতদন্তে বাধা গ্রামবাসীদের
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

দেওয়াল চাপা পড়ে একই পরিবারের ৩ জনের মৃত্যু, দেহ ময়নাতদন্তে বাধা গ্রামবাসীদের

  • মৃতদের পরিবারের অভিযোগ, সরকারি আবাসনের জন্য আবেদন করা হলেও তাঁরা অনেক চেষ্টা করেও তা পাননি।

রাতভর চলছে বৃষ্টি। তারই মধ্যে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল মাটির বাড়ির দেওয়াল। আর তার নীচে চাপা পড়ে মৃত্যু হল এক শিশু–সহ ৩ জনের। প্রত্যেকে একই পরিবারের। পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের গোবর্ধনপুরের ঘটনা।

বৃহস্পতিবার রাতে খাওয়াদাওয়া সেরে মেয়ে ও নাতনিকে ঘুমতে যান টগরা বিবি। রাত প্রায় ১টা নাগাদ আচমকা মাটির দেওয়ালটি পড়ে যায় তাঁদের ওপর। সেই আওয়াজ ও তাঁদের আর্ত চিৎকার শুনে স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে আসেন। রাতভর ধংসস্তুপ সরিয়ে চলে উদ্ধারকাজ। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না, তিনজনকেই মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন গ্রামবাসীরা।

এদিকে, শুক্রবার সকালে খবর পেয়ে গ্রামে পুলিশ এলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। মৃতদের পরিবারের অভিযোগ, সরকারি আবাসনের জন্য আবেদন করা হলেও তাঁরা অনেক চেষ্টা করেও তা পাননি। তাই মাটির বাড়িতে থাকতে হচ্ছিল তাঁদের। আর তার জেরে এদিনের এই মর্মান্তির ঘটনা ঘটল বলে দাবি করেন তাঁরা। জানা গিয়েছে, দেহ তিনটি ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যেতে চাইলে বাধা দেন গ্রামবাসীরা। শেষে বিক্ষোভের মুখে এলাকা ছাড়তে হয় পুলিশকে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতভর প্রবল বৃষ্টিতে কলকাতার বেলেঘাটায় ভেঙে পড়ে ১৫০ বছরের একটি পুরনো বাড়ির একাংশ। তাতে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় এক বৃদ্ধার। ঘটনায় আহত হয়েছেন তাঁর ছেলে।

বন্ধ করুন