বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > তৃণমূল বিধায়ক খুনে সিআইডির সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে রানাঘাটের বিজেপি সাংসদের নাম
প্রয়াত তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস। ফাইল ছবি
প্রয়াত তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস। ফাইল ছবি

তৃণমূল বিধায়ক খুনে সিআইডির সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে রানাঘাটের বিজেপি সাংসদের নাম

  • এই মুহূ্র্তে দিল্লিতে আছেন সাংসদ জগন্নাথ সরকার। তিনি বলেন, ‘‌এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছাড়া আর কিছুই নয়।’‌

কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসকে খুনের ঘটনায় সোমবার সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট পেশ করল সিআইডি। আর তাতে নাম রয়েছে নদিয়া জেলার রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের। ঘটনার তদন্তের দায়ভার নেওয়ার পর জগন্নাথ সরকারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। কিন্তু রানাঘাট আদালতে পেশ করা সিআইডি–র প্রথম চার্জশিটে তাঁর নাম ছিল না বলে জানা গিয়েছে।

২০১১ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার পর রাজ্যে প্রথম বিধায়ক হিসেবে খুন হন কৃষ্ণগঞ্জের সত্যজিৎ বিশ্বাস। এই ঘটনায় হাঁসখালি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। গত বছরই আততায়ীদের গ্রেফতার করা হয়েছিল। সিআইডি–র দাবি, সত্যজিৎ বিশ্বাসকে খুনের আগে এবং পরে এই ঘটনায় অভিযুক্ত অভিজিৎ কুন্ডারি ও নির্মল ঘোষকে বেশ কয়েকবার ফোন করেন রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। তাঁদের কথাও হয়। সেই তথ্যপ্রমাণ ও কল ডিটেইলস সিআইডি–র হাতে এসেছে বলে তাদের দাবি।

এই মুহূ্র্তে দিল্লিতে আছেন সাংসদ জগন্নাথ সরকার। তিনি বলেন, ‘‌এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছাড়া আর কিছুই নয়। কারণ, এই মুহূর্তে নদিয়ায় তৃণমূলের অবস্থান ভয়াবহ। আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে। এর আগে সিআইডি আমাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। প্রথম চার্জশিটে কিন্তু আমার নামও ছিল না। বিচার ব্যবস্থার ওপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে।’‌

২০১৯–এর ৯ ফেব্রুয়ারির রাতে ফুলবাড়ি এলাকায় সরস্বতী পুজোর উদ্বোধন করতে এসে আততায়ীদের গুলিতে গুরুতর জখম হন তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসের। খুব কাছ থেকে তাঁকে একাধিকবার গুলি করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

বন্ধ করুন