বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > নির্যাতনের কাহিনী শুনে আমার চোখের জল শুকিয়ে গিয়েছে, কোচবিহার থেকে লিখলেন রাজ্যপাল
বৃহস্পতিবার কোচবিহারে ভোট পরবর্তী হিংসায় আক্রান্তদের বাড়িতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। 
বৃহস্পতিবার কোচবিহারে ভোট পরবর্তী হিংসায় আক্রান্তদের বাড়িতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। 

নির্যাতনের কাহিনী শুনে আমার চোখের জল শুকিয়ে গিয়েছে, কোচবিহার থেকে লিখলেন রাজ্যপাল

  • বৃহস্পতিবার দুপুরে কোচবিহারের হিংসা পরবর্তী পরিস্থিতি দেখতে পৌঁছন রাজ্যপাল। সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সাংসদ নিশিথ প্রামাণিক।

ভোট পরবর্তী হিংসা কবলিত কোচবিহারের শীতলকুচি পরিদর্শনের পর নিজের উদ্বেগের কথা জানিয়ে টুইট করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাঁর টুইটে ফের একবার মমতা প্রশাসনকে কাঠড়ায় তোলেন তিনি। বলেন, হিংসা যে এত ভয়াবহ, কল্পনা করতে পারিনি। 

তিনি লিখেছেন, ‘কোচবিহারে প্রভাবিত এলাকা ঘুরে দেখলাম। পরিস্থিতি দেখে মন ভারাক্রান্ত। নির্যাতনের কাহিনী শুনে আমার চোখের জল শুকিয়ে গিয়েছে। ভোট পরবর্তী হিংসার এই ভয়াবহতা কখনো কল্পনা করতে পারিনি’।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোচবিহারের হিংসা পরবর্তী পরিস্থিতি দেখতে পৌঁছন রাজ্যপাল। সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সাংসদ নিশিথ প্রামাণিক। মাথাভাঙা, শীতলকুচি-সহ একাধিক এলাকা ঘুরে দেখেন রাজ্যপাল। ভাঙচুর হওয়া বাড়িতে ঢুকে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন তিনি। কথা বলেন আক্রান্তদের সঙ্গে। 

রাজ্যপাল বলেন, গণতন্ত্রে রাজনৈতিক বিরোধিতার মূল্য প্রাণ দিয়ে চোকাতে হবে, এমনটা সারা দেশে কোথাও হয় না। কেন নির্বাচনে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গেই রক্ত ঝরে?

পালটা জেলার তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন, ‘আমাকে যারা আক্রমণ করেছিল, প্রাণ নাশের চেষ্টা করেছি তাদের প্ররোচনা দিয়ে এসেছেন রাজ্যপাল। আমি যেদিন বাড়ি ফিরলাম সেদিনই উনি এখানে এলেন। এতেই বোঝা যায় ওঁর উদ্দেশ্য কী’?

 

বন্ধ করুন