বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দীপাবলিতে নিষ্প্রদীপ রঘুনাথপুর, সুবোধকে কান্নাভেজা শেষ বিদায় গ্রামবাসীর
দীপাবলির রাতে শহিদ সুবোধ ঘোষকে অশ্রসিক্ত চোখে শেষ বিদায় জানান রঘুনাথপুরের বাসিন্দারা। (ছবিটি প্রতীকী)
দীপাবলির রাতে শহিদ সুবোধ ঘোষকে অশ্রসিক্ত চোখে শেষ বিদায় জানান রঘুনাথপুরের বাসিন্দারা। (ছবিটি প্রতীকী)

দীপাবলিতে নিষ্প্রদীপ রঘুনাথপুর, সুবোধকে কান্নাভেজা শেষ বিদায় গ্রামবাসীর

  • গ্রামের ছেলের নিদারুণ মৃত্যুতে এবারের দীপাবলি নিষ্প্রদীপ রাখার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রঘুনাথপুরবাসী।

দীপাবলির রাতে ঘরে ফিরল জম্মু ও কাশ্মীরের উরি সেক্টরের নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন অঞ্চলে পাক হামলায় নিহত সেনা জওয়ান সুবোধ ঘোষের দেহ। সাশ্রুনয়নে তাঁকে শেষ বিদায় জানালেন রঘুনাথপুর গ্রামের বাসিন্দারা।

রবিবার রাতে নদিয়া জেলার রঘুনাথপুর গ্রামে পৌঁছয় কফিনবন্দি শহিদ সুবোধ ঘোষের দেহ। গ্রামের ছেলের নিদারুণ মৃত্যুতে এবারের দীপাবলি নিষ্প্রদীপ রাখার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন গ্রামবাসী। শেষকৃত্যের জন্য শবযাত্রা এগোলে শহিদকে অশ্রসিক্ত শেষ বিদায় জানান প্রতিবেশীরা। শ্মশানে সেনাবাহিনীর তরফে দেওয়া হয় গান স্যাল্যুট।

২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে বিয়ে করেছিলেন সুবোধ। শোকস্তব্ধ স্ত্রী অনিন্দিতা কোনও রকমে জানান, তিন মাসের মেয়ের অন্নপ্রাশনে বাড়ি ফিরবেন বলে কথা দিয়েছিলেন স্বামী। কিন্তু সেই স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেল। এ দিকে, সুবোধ ঘোষের নামে স্থানীয় রাস্তার নামকরণের আবেদন জানিয়েছেন তাঁর পরিবার ও রঘুনাথপুরের মানুষ।

গত শুক্রবার সংঘর্ষ বিরতি নীতি লঙ্ঘন করে উরি সেক্টরের নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর অঞ্চলে ঝাঁকে ঝাঁকে গুলি-গোলা বর্ষণ করে পাক সেনাবাহিনী। হামলায় ৫ সেনা সদস্য-সহ নিহত হন ১১ জন। ভারতীয় সেনার পাল্টা আক্রমণে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বেশ কিছু ক্ষয়ক্ষতি হয় বলে জানা গিয়েছে। 

 

বন্ধ করুন