বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দুর্গাপুজো উপলক্ষে টানা ১৬ দিন ছুটি, বাংলার সরকারি কর্মীদের মুখে ফুটল হাসি
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

দুর্গাপুজো উপলক্ষে টানা ১৬ দিন ছুটি, বাংলার সরকারি কর্মীদের মুখে ফুটল হাসি

  • উৎসবের মরসুমে লম্বা পুজোর ছুটি পাচ্ছেন রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা। সব মিলিয়ে টানা ১৬ দিনের লম্বা ছুটি পেতে চলেছেন রাজ্যের সরকারী কর্মচারীরা।

বাঙালির সবথেকে বড় উত্সব দুর্গাপুজো। সেই উত্সব উপলক্ষে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য সুখবর শোনাল নবান্ন। জানা গিয়েছে, উৎসবের মরসুমে লম্বা পুজোর ছুটি পাচ্ছেন রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা। টানা ১৬ দিনের ছুটি পাবেন রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা। শুক্রবার ৮ অক্টোবর অফিস ছুটি হওয়ার পর ফের অফিস খুলবে লক্ষ্মী পুজোর পর। যদিও সরকারি হিসেবে ছুটি সুরু হচ্ছে ১১ অক্টোবর থেকে এবং শেষ হচ্ছে ২২ অক্টোবর।

গতবছর করোনা আবহে স্বাভাবিক ভাবে পুজো উপভোগ করতে পারেনি বাঙালি। এই আবহে অবশ্য বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। তবে কেরলের ওনাম পরবর্তী পরিস্থিতি থেকে শিক্ষা নিয়ে ১১ দফা নির্দেশিকা জারি করে রাজ্য সরকার। এই আবহে রেলের তরফে জানানো হয়, মেট্রোয় চড়ে পুজোয় সারা রাত ঠাকুর দেখা যাবে না কলকাতায়। কলকাতা মেট্রোর তরফে জানানো হয়েছে, সপ্তমি, অষ্টমি ও নবমি পরিবর্তিত সূচি মেনে চলবে মেট্রো। রাতে দক্ষিণেশ্বর থেকে শেষ মেট্রো ছাড়বে ১০.৪৮ মিনিটে।

উল্লেখ্য, হাই কোর্টের নির্দেশিকা মেনে পুজো কার্নিভাল বাতিল করেছে রাজ্য সরকার। একই সঙ্গে করোনাকালে পুজো সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত করতে ১১ দফা নির্দেশিকা জারি করে নবান্ন। নির্দেশিকায় স্পষ্ট বলা হয়, মণ্ডপে প্রবেশ এবং প্রস্থানের পথ খোলামেলা রাখতে হবে। মণ্ডপে আগত দর্শনার্থীদের অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে। পুজো কমিটিগুলিকেও মাস্ক এবং স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করতে হবে। মণ্ডপে ঠিক মতো সামাজিক দুরত্ব ও করোনাবিধি মানা হচ্ছে কি না, তা নজর রাখতে পর্যাপ্ত সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবকের ব্যবস্থা করতে হবে পুজো কমিটিকে। এছাড়া বলা হয়েছে, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পুজোর উদ্বোধন এবং বিসর্জনের অনুষ্ঠানে জাঁকজমক করা যাবে না।

বন্ধ করুন