বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কোথায় গেলেন বালির রিয়া ও অনন্যা? খোঁজ পাচ্ছেন না মুর্শিদাবাদের ২ রাজমিস্ত্রি
অনন্যা ও রিয়া কর্মকার।

কোথায় গেলেন বালির রিয়া ও অনন্যা? খোঁজ পাচ্ছেন না মুর্শিদাবাদের ২ রাজমিস্ত্রি

  • কিছুতেই প্রেমিকাদের সন্ধান পাচ্ছেন না শেখর ও শুভজিৎ।

জেল থেকে মুক্তি মিলেছে। কিন্তু খোঁজ পাচ্ছেন না অনন্যা এবং রিয়ার। কোনওভাবেই যোগাযোগ করতে পারছেন না বালির নিশ্চিন্দার কর্মকার বাড়ির দুই বধূ তথা নিজের মনের মানুষদের সঙ্গে। আপাতত তাঁদের সঙ্গে কোনওভাবে যোগাযোগ করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন মুর্শিদাবাদের দুই রাজমিস্ত্রি শেখর রায় এবং শুভজিৎ দাস।

কারাবাসের পর জেল থেকে ছাড়া পেয়েই শেখর ও শুভজিৎ বলেছিলেন, ‘রাজমিস্ত্রি বলে কি আমরা মানুষ নয়? আমাদের মন নেই? আমরাও তো ভালোবাসতে পারি। আমরা আইন মেনে আমাদের প্রেমিকাদের বিয়ে করে সংসার করতে চাই।’ 

কিন্তু কিছুতেই প্রেমিকাদের সন্ধান পাচ্ছেন না শেখর ও শুভজিৎ। শ্বশুরবাড়িতে থাকছেন না প্রেমিকারা। চেনা ঠিকানা ছেড়ে মনের মানুষরা কোথায় আছেন, সেটা জানতে যে ফোন করবেন, সেই উপায়ও নেই। রিয়া এবং অনন্যার ফোন নাকি এখনও পুলিশের হেফাজতে আছে। কোনও উপায় না পেয়ে প্রেমিকাদের পরিচিতদের ফোন করছেন দুই রাজমিস্ত্রি। যদি কেউ বলতে পারেন, তাঁদের প্রেমিকারা কোথায় আছেন। অনেকদিন দেখা হয়নি তাঁদের।

উল্লেখ্য, বালির কর্মকার বাড়িতে কাজের সময়ছোটো বউ অনন্যার সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয় শেখরের। শুভজিতের প্রেমে পড়েন বড় বউ রিয়া। নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার পর নিজেদের বাড়িতে ফিরে যান দুই রাজমিস্ত্রি। তবে অনন্যাকে একটি মোবাইল ফোন দিয়ে যান শেখর। সেই ফোনেই দুই বধূর সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন শেখর এবং শুভজিৎ। অভিযোগ, গত ১৫ ডিসেম্বর শ্রীরামপুরে শীতের পোশাক কিনতে যাওয়ার নাম করে শেখরের সঙ্গে দেখা করেন অনন্যা ও রিয়া। সেখানেই পালানোর পরিকল্পনা করেন তিনজন। সঙ্গে ছিল রিয়ার সাত বছরের ছেলে আয়ুষও। তাকে নিয়ে প্রথমে সামশেরগঞ্জ যান তিনজন। এক রাত সেখানে কাটিয়ে মুম্বইয়ের উদ্দেশে রওনা দেন অনন্যা, রিয়া, শেখর এবং শুভজিৎ। তারইমধ্যে মোবাইল ফোনের লোকেশন ট্র্যাক করে অনন্যার অবস্থান জানতে পারেন গোয়েন্দারা। তিনি মুম্বইয়ে আছেন জেনে সেখানে যাওয়ার প্রস্তুতি শুরু করে হাওড়া সিটি পুলিশের একটি দল। পরে গোয়েন্দারা জানতে পারেন, আর্থিক সমস্যা জন্য রাজ্যে ফেরার পরিকল্পনা করছেন চারজন। মুম্বই থেকে ট্রেনে আসানসোল আসছেন তাঁরা। সেখান থেকে বাসে মুর্শিদাবাদ যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। তারপর তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছিল। কয়েকদিন জেলেও কাটাতে হয়েছিল শেখর এবং শুভজিৎকে। তবে অনন্যা এবং রিয়ার বয়ানের ভিত্তিতে অপহরণের ধারা কার্যকর না হওয়ায় দুই রাজমিস্ত্রি জামিন পেয়েছেন।

বন্ধ করুন